অপারেটিং সিস্টেম কী? অপারেটিং সিস্টেমের প্রকারভেদ বর্ণনা করো

অপারেটিং সিস্টেম হল একটি সফটওয়্যার যা উপকারিতা সুবিধা দেয় এবং কম্পিউটার ও ব্যবহারকারীর মধ্যে অনুস্থাপন করে। এটি নির্দিষ্ট কাজগুলির জন্য ব্যবহার করা হয় যেমন ফাইল ম্যানেজমেন্ট, সফটওয়্যার প্রস্তুতি এবং প্রদর্শন, হার্ডওয়্যার এবং সফটওয়্যার সম্পর্কিত নির্দিষ্ট কাজগুলি। অপারেটিং সিস্টেমের এক প্রধান কাজ হল কম্পিউটারের সমস্ত সম্পর্কিত প্রক্রিয়াকে নির্দেশ করা এবং রাখা। ডেস্কটপ ও ল্যাপটপের জন্য উইন্ডোজ এবং লিনাক্স এমনকি মোবাইল ফোনের জন্য আইওএস এবং এ্যানড্রয়েড এমন একাধিক ধরণের অপারেটিং সিস্টেম রয়েছে।

অপারেটিং সিস্টেম কী?

অপারেটিং সিস্টেম হল কম্পিউটার সিস্টেমের মূল প্রচালক, যা কম্পিউটার সফটওয়্যার এবং হার্ডওয়্যারের মধ্যমে কাজ করে। এটি কম্পিউটারের সকল সিস্টেম রিসোর্সের মাধ্যমে একটি ইন্টারফেস প্রদান করে, যা ব্যবহারকারীদের কাজ করার সুবিধা দেয়। অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহারকারীর ওপর নির্ভরশীল কাজগুলি সম্পাদন করে, যেমন কম্পিউটার হার্ডওয়্যারের সাথে সঠিকভাবে কমুনিকেশন করা, ফাইলগুলি সংরক্ষণ করা এবং ব্যবহারকারী ইনপুট দেওয়া এবং আউটপুট নেওয়ার মাধ্যমে কম্পিউটার এর সাথে সহজ সম্প্রয়োগ করা। এছাড়াও, অপারেটিং সিস্টেম প্রোগ্রাম্যারদের জন্য সিস্টেম কল ব্যবহার করে সর্বোচ্চ সুবিধা প্রদান করে।

সংক্ষেপে বলা যায় যে, অপারেটিং সিস্টেম হল একটি মাধ্যম, যা ব্যবহারকারী ও কম্পিউটারের মধ্যে মাঝে মধ্যে সম্প্রয়োগ করে জন্য কাজে লাগে।

অপারেটিং সিস্টেম সম্পর্কে পরিচিতি

অপারেটিং সিস্টেম হল একটি প্রোগ্রাম বা সফ্টওয়্যার যা কম্পিউটার এবং উক্ত কম্পিউটার সংযুক্ত সব ডিভাইসগুলোর মধ্যে মাধ্যমমুখী করে। এটি কম্পিউটার ব্যবহারকারীদের কাজকর্ম পরিচালনার সুবিধা উপস্থাপন করে। সাধারণত একটি অপারেটিং সিস্টেম কম্পিউটারে ইনস্টল করা এবং এটি আপনার প্রয়োজন মত কনফিগার করা হয়। এর মাধ্যমে ইউজার অ্যাক্সেস করতে পারে সব সফ্টওয়্যার, হার্ডওয়্যার, পারিপারিক ডিভাইস এবং অন্যান্য কম্পিউটার সম্পর্কিত কাজকর্ম।

এটি কম্পিউটার এবং উক্ত কম্পিউটার সংযুক্ত সব ডিভাইসগুলোর মধ্যে মেধামত্তাসহকারে সমন্বিত করে এবং কম্পিউটার ব্যবহারকারীদের একটি শর্ত মুক্ত ও সুবিধাজনক কাজকর্ম পরিচালনা সুবিধা উপস্থাপন করে। অপারেটিং সিস্টেম একটি মধ্যম যা প্রতিযোগিতামূলক বাজারে এক ভিন্ন প্রকারের ব্যবহারকারীদের সুবিধাজনক কাজ সম্পাদনে সাহায্য করে।

অপারেটিং সিস্টেমের উদ্দেশ্য কি?

অপারেটিং সিস্টেম একটি সফটওয়্যার হল যেটি একটি কম্পিউটার সিস্টেমের প্রধান উদ্দেশ্য হল সফল কাজটি চলার জন্য আবদ্ধ স্পেস ব্যবহার করে এডমিনিস্ট্রেট করা। এটি কম্পিউটারের প্রসেসর, মেমোরি, ইনপুট / আউটপুট ডিভাইস এবং সফটওয়্যার দিয়ে সমন্বয় করে একটি উপযুক্ত ব্যবস্থা প্রদান করে। অপারেটিং সিস্টেমের উদ্দেশ্য হল একজন ব্যবহারকারীকে একটি সুবিধাজনক পরিচালনার জন্য কম্পিউটারের সিরিজ অফ লেয়ার দিয়ে প্রদর্শন করা। অপারেটিং সিস্টেম পরিচালিত করে কম্পিউটারের তালিকা এবং নেটওয়ার্ক মাধ্যমে বিভিন্ন প্রোগ্রাম এর সাথে সমন্বিত করে কাজ করতে পারে।

এটি একটি সহজ ইউজার ইন্টারফেস দিয়ে উপযুক্ত ব্যবস্থা সরবরাহ করে এবং বিভিন্ন অ্যাপলিকেশান চালানোর জন্য একটি ড্রাইভার ব্যবহার করে। এতে ব্যবহারকারীর জন্য কম্পিউটারের সাথে ইন্টারেকশন সহজ হয় এবং সব সফটওয়্যার আরাম সেট আপ হয়ে থাকে। অপারেটিং সিস্টেম সাধারণত একটি উচ্চতর ফাংশন্যালিটি বিশিষ্ট সফটওয়্যার হিসাবে বিবেচিত হয় যা সিস্টেম কম্পিউটারের সাথে একত্রিত হয়। সমন্বয়, রেসোর্স ম্যানেজমেন্ট এবং হার্ডওয়্যার ইন্টারফেস সম্পর্কিত বিভিন্ন কাজে অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহৃত হয়।

See also  বিভিন্ন ধরনের কম্পিউটার ভাইরাস সম্পর্কে জেনে নিন

অপারেটিং সিস্টেমের প্রকারভেদ

অপারেটিং সিস্টেম হলো কম্পিউটারে ব্যবহার করা হয়ে যাওয়া সফটওয়্যারের একটি বিশেষ ধরন। অপারেটিং সিস্টেম সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সফটওয়্যার হিসাবে পরিচিত। এটি কম্পিউটারের সকল কাজ নিয়ন্ত্রণ করে এবং সাধারণ সফটওয়্যারের জন্য একটি মাধ্যম হিসাবে ব্যবহৃত হয়। এটি কম্পিউটার হার্ডওয়্যারের সাথে সংযুক্ত হয় এবং একটি স্থায়ী সংযোগ তৈরি করে যা লক্ষ্য করে কম্পিউটার এবং হার্ডওয়্যারের মধ্যে বাড়তি সম্পর্ক তৈরি করে।

বর্তমানে ইউনিক্স এবং ওয়িন্ডোজ এই প্রকারের প্রধান অপারেটিং সিস্টেম। ইউনিক্স মূলত পাশাপাশি একটি মাল্টি উজ্জ্বল ও চালক ক্ষমতা সিস্টেম, যেখানে ওয়ান এক্সিকিউশন এর নীতি ব্যবহৃত হয়। চলক ক্ষমতা সিস্টেম একটি প্রস্তুত উপাত্ত ব্যবহার করে যা সিস্টেমের একটি ভাগ হিসাবে ব্যবহার হয়। ওয়িন্ডোজ রেজনভ্যালি একটি একল উজ্জ্বল সিস্টেম, যা মাইক্রোসফট দ্বারা উন্নয়নকৃত।

এটি সহজে ব্যবহার করা যায় এবং বিভিন্ন ফাংশনালিটি সম্পন্ন।

ডেস্কটপ অপারেটিং সিস্টেম

অপারেটিং সিস্টেম হলো একটি সফটওয়্যার যা কম্পিউটারের হার্ডওয়ার এবং সফটওয়্যার এর মধ্যে একটি মাধ্যম হিসেবে কাজ করে। এই সিস্টেমটি কম্পিউটারের বিভিন্ন কাজের পরিচালনার জন্য ব্যবহৃত হয়, যেমন ফাইল ম্যানেজমেন্ট, প্রোগ্রাম ইনস্টলেশন, সিস্টেম সেটিংস এবং অন্যান্য ভার্যস্ত কাজের জন্য। ডেস্কটপ অপারেটিং সিস্টেম হলো একটি সিস্টেম যা আমাদের কম্পিউটারে ইনস্টল করা হয়। এই সিস্টেমটি আমাদের কম্পিউটারের সমস্ত কাজের পরিচালনা করে এবং ক্যাটালগ করে রাখে।

সবচেয়ে পরিচিত ডেস্কটপ অপারেটিং সিস্টেম হলো ওয়িন্ডোজ। আমরা দৈনন্দিন জীবনে ওয়িন্ডোজকে ব্যবহার করি। এছাড়াও লিনাক্স, ম্যাক ওএস, ইউনিক্স এবং অন্যান্য কিছু ও ডেস্কটপ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়। তবে একেবারে প্রায় সবাইকেই ওয়িন্ডোজ জানা।

এই ধরনের অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করে আমরা একটি কম্পিউটার এর সকল জিনিস পরিচালনা করে থাকি এবং সহজে দূরের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ করতে পারি।

সার্ভার অপারেটিং সিস্টেম

অপারেটিং সিস্টেম (Operating System – OS) হল সফটওয়্যারের একটি প্রকার যা কম্পিউটারের হার্ডওয়্যার রিসোর্সের সাথে লগ ইন করে কাজ করে। কম্পিউটারের উদাহরণস্বরূপ, আপনার কম্পিউটারে একটি অপারেটিং সিস্টেম থাকলে ওয়েব ব্রাউজার, ওয়ার্ড প্রসেসর এবং অন্যান্য অ্যাপ্লিকেশনগুলি চলাচল করতে পারবে। একটি স্বচ্ছ ইনস্টল বা আপডেট অপারেটিং সিস্টেম স্থাপন করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, কারণ এটি ন শুধুই আপনার কম্পিউটারের পারফরমেন্স বেশি করে, বরং এর মাধ্যমে আপনি কম্পিউটারের সমস্যার এরকম সমাধান করতে পারবেন। সাধারণত অপারেটিং সিস্টেম থাকে একটি উন্নয়নশীল সিস্টেম যা নতুন এবং উন্নয়নশীল ফিচার সহ লগ ইন করে কাজ করতে পারে।

আমরা জেনেছি কিছুটা অপারেটিং সিস্টেমের প্রকারভেদের সম্পর্কে, এখন আপনার হাতে একটি নির্ভরযোগ্য সিস্টেম স্থাপন করার সময় এই তথ্যগুলি আপনার কাজে লাগবে।

মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম

অপারেটিং সিস্টেম হল কম্পিউটার এবং মোবাইল ফোনের মূল কার্যকরী তথ্য সংগ্রহ এবং ব্যবস্থাপনার জন্য একটি সফটওয়্যার যা হার্ডওয়্যার এক্সেস করে। মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম হল এমন একটি সফটওয়্যার যা মোবাইল ফোনগুলির দৃশ্য, শব্দ এবং ডাটা প্রক্রিয়া করে। এতে সফটওয়্যারের মাধ্যমে মোবাইল ফোনগুলি ব্যবহারকারীর পছন্দ অনুযায়ী কাজ করে। প্রধানতঃ তিনটি প্রকার মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম আছে: আইওএস, এ্যান্ড্রয়েড এবং উইন্ডোজ ফোন।

See also  গ্রাফিক্স (Graphics) বলতে কী বোঝায়? গ্রাফিক্সের প্রকারভেদ।

সকলের উপকারিতা ও সুবিধা আলাদাভাবে নয়, তবে প্রতিটি অপারেটিং সিস্টেম বিভিন্ন উপকারিতা এবং সুবিধা সহজেই সম্পর্কিত ব্যবহারকারীদের সুলভ করে। উদাহরণস্বরূপ, আইওএস একটি বেশি সুন্দর অপারেটিং সিস্টেম যা একটি সহজ ব্যবহারকারী ইন্টারফেস পরিবেশ সরবরাহ করে। এক্ষেত্রে একজন ব্যবহারকারীর জন্য সর্বোপরি বিন্দুতে কোনও সমস্যা নেই এবং এটি ব্যবহারকারীর জন্য বেশ সুবিধাজনক ও জনপ্রিয়।

এমবেডেড অপারেটিং সিস্টেম

অপারেটিং সিস্টেম হল সফটওয়্যার যা কম্পিউটারের মূল কাজ করে। এটি কম্পিউটারের হার্ডওয়্যার সম্পর্কিত যত সকল লেভেলে কাজ করে, একই সময়ে একটি নির্দিষ্ট কাজ করে যা সফটওয়্যার দ্বারা নির্দিষ্ট করা হয়। এটি কম্পিউটারের মধ্যে আবদ্ধ একটি সিস্টেম লেয়ার রয়েছে যা কম্পিউটার সম্পর্কিত সকল কাজ নিয়ন্ত্রণ করে এবং হার্ডওয়্যার এবং সফটওয়্যারের মধ্যে সমন্বয় বৃদ্ধি করে। যেমন, উইন্ডোজ কম্পিউটার সিস্টেম, লিনাক্স, ম্যাক ওএস এবং আইওএস এবং অন্যান্য কম্পিউটার অপারেটিং সিস্টেমের পরিবর্তে এমবেডেড অপারেটিং সিস্টেমও রয়েছে যা কোনও নির্দিষ্ট উদ্দেশ্যে (যেমন মোবাইল ফোন বা উদাহরণস্বরূপ একটি ক্যামেরা নির্দিষ্ট কাজের জন্য) ব্যবহৃত হয়।

রিয়েল টাইম অপারেটিং সিস্টেম

অপারেটিং সিস্টেমের তথ্যপ্রযুক্তি এমন একটি সফটওয়্যার যা কম্পিউটারের হার্ডওয়্যারের সম্পর্কে কাজ করে। এটি আপনার কম্পিউটারের রাখালি মেমরি, প্রসেসর, ড্রাইভ, এবং অন্যান্য মেশিনারির পার্টসগুলি সম্পর্কে কাজ করে। এটি আপনার প্রযুক্তির মধ্যে ডেটা পাঠানোর একটি মাধ্যম হিসেবে কাজ করে যা কম্পিউটারের কাজ করতে সহায়তা করে। অপারেটিং সিস্টেমের প্রকার হলো রিয়েল টাইম অপারেটিং সিস্টেম, যা রিসোর্সের সাথে সরাসরি কম্পিউটারের নির্দিষ্ট রেসপন্স করে।

এর মাধ্যমে আপনার কম্পিউটারের হার্ডওয়্যার সার্ভিস দেয়া হয়। রিয়েল টাইম অপারেটিং সিস্টেমে দ্রুত ও সরল কাজ করা যায়, যা মূলত এই টাইম সেনসিটিভ কাজ গুলির জন্য প্রয়োজন। রিয়েল টাইম অপারেটিং সিস্টেমে সাধারণত নেটওয়ার্কিং কাজ বা সার্ভার সিস্টেম কাজদারি করা হয়। তাই রিয়েল টাইম অপারেটিং সিস্টেম একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রকারের অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে বিবেচিত হয়।

নেটওয়ার্ক অপারেটিং সিস্টেম

অপারেটিং সিস্টেম হলো কম্পিউটারের একটি প্রধান সফটওয়্যার যা কম্পিউটারের হার্ডওয়্যার কম্পোনেন্ট এবং আপেরেশন সিস্টেমের মাধ্যমে সরঞ্জাম প্রবাহ করার জন্য ব্যবহৃত হয়। কম্পিউটার ব্যবহার করতে হলে অপারেটিং সিস্টেম এনাবল হতে হবে যাতে ব্যবহারকারী উপকল্পসমূহ ব্যবহার করতে পারেন। এটি কম্পিউটার এবং আপেরেশন সিস্টেমের মধ্যে একটি ব্রিজ হিসাবে কাজ করে যা উভয়ই নির্দিষ্ট কাজগুলি সম্পাদনের জন্য আবশ্যক। বিভিন্ন ধরনের অপারেটিং সিস্টেম রয়েছে, সেইসব হলো – উনিক্স, লিনাক্স, ওএস এক্স, মাইক্রোসফট ওএস এবং ম্যাক ওএস।

প্রত্যেকটি অপারেটিং সিস্টেম বিশেষ করে তাদের নির্দিষ্ট কর্মকাণ্ড সম্পাদন করার জন্য তৈরি করা হয়েছে যেখানে ব্যবহারকারীরা তাদের পরিচিত ইন্টারফেস ব্যবহার করে কম্পিউটার সম্পর্কিত কাজগুলি সম্পাদন করতে পারেন।

Leave a Comment