কম্পিউটার ও মানব মস্তিষ্কের মধ্যে পার্থক্য কি? কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্র কেন?

কম্পিউটার এবং মানব মস্তিষ্ক দুটি পারস্পরিকভাবে বিভিন্ন। মানুষ একটি স্বচ্ছ প্রক্রিয়ামতো সর্বসাধারণ হিসাবে সিদ্ধান্ত নিতে পারে যেখানে কম্পিউটার এটি প্রকল্পের একটি জটিল অংশ হিসাবে কাজ করে। আসলে কম্পিউটার নিজে নিজে কোনো সিদ্ধান্ত নেয় না। এছাড়াও মানব মস্তিষ্ক বিভিন্ন কাজের জন্য ব্যবহার করা হয় কেননা মানুষের মস্তিষ্কটি সকল বিষয় প্রসেস করতে সক্ষম, একটি প্রসেসিং ইউনিটি (প্রসেসর) নেই এবং একটি সম্পূর্ণ নির্ভরশীল মনস্তাত্ত্ব নেই।

সাধারণতঃ, এই নির্ভরশীলতা ও নেতৃত্ব আমাদের কম্পিউটার দরজা থেকে পায়। কম্পিউটারের নির্বোধযন্ত্রটি আমাদের মানদণ্ড মধ্যে সঠিক নির্ধারণ করে এবং আমরা কোনো সমস্যার সমাধানের জন্য সেটিকে ব্যবহার করি। মানদণ্ড একই থাকলেও মানবতার ভাব রক্ষাকর্তা কম্পিউটার দ্বারা কিছুটা নির্দিষ্ট নয়। যেহেতু কম্পিউটার নির্ভরশীল, আমরা সমস্যার হলে তা উত্থাপন করার আগে মানব নিবেশন করে তা সমস্যার বিষয়টি বুঝতে পারি এবং কম্পিউটারকে বুঝিয়ে দেব।

কম্পিউটার ও মানুষের মধ্যে পার্থক্য

কম্পিউটার এবং মানুষ একই নয়। তাদের বিশেষত্ব ও গুণ একে অন্যকে থেকে একটু ভিন্ন হয়। কম্পিউটার একটি যন্ত্র, এটি মানুষের মত নয় যা স্বচ্ছতার সঙ্গে সম্পর্কিত। তারা নিজেদের ম্যাক্সিমাম ক্যাপ্যাসিটি ও বেশি কাজ করতে পারে, মানুষ তাঁদের প্রতিজ্ঞাপন না করলেও।

তবে একটি কম্পিউটার সেটাকে সমস্যাগুলি সমাধান করতে পারে না যেন মানুষের মত চিন্তা করতে পারে। মানুষের সঙ্গে তাদের ব্যবহারের পদ্ধতিও ভিন্ন হয়, সেগুলি কম্পিউটার নিজের মতো হলেও মানুষ তার মধ্যে আলোচনা করতে অসুবিধা হওয়া স্বাভাবিক। সুতরাং এদের মধ্যে একটি পার্থক্য রয়েছে এবং এটি দুটি জিনিসই সমৃদ্ধ এবং প্রযোজন।

কম্পিউটার কী?

সমস্যাগুলো আপনাদের চিন্তার উৎপাদক হয়ে উঠতে পারে। তবে কম্পিউটারের সেই পাওয়ার নয় যে সে মানুষকে সমস্যা থেকে মুক্ত করতে পারবে। কম্পিউটার একটি তথ্য প্রক্রিয়াকরণ যন্ত্র হলেও সেটি মানুষের সাথে সমালোচনা করতে পারবে না। কারণ মানুষের অভিজ্ঞতা, বুদ্ধি, মতামত এবং ক্রিয়াবিদ্যা একই ক্ষমতা সংক্রান্ত নহে।

হাতে-কলমে কোন কিছু লিখা হলে মানুষের ক্ষেত্রে সেটি ভবিষ্যতে একটি তথ্য হিসাবে ব্যবহার করা হতে পারে। কিন্তু কম্পিউটার যখন তথ্য হিসাবে ব্যবহার করা হয় তখন সে পুরোপুরি অন্যরকম কাজ করে। কম্পিউটার বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালীদের মধ্যে একটি। সে ক্ষমতার কারণেই তাকে প্রায় সব ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়, সেই পাওয়ারে মানুষের সহযোগিতার ভালোবাসা থাকায় মানুষ এবং কম্পিউটার একগুচ্ছ হওয়া সম্ভব না।

মানব মস্তিষ্ক কী?

মানব মস্তিষ্ক হলো পৃথিবীর সর্বাধিক জটিল মেশিন। এটি রক্তচাপ, হৃদপেশী, নিউরনগুলি, হরমোন এবং অন্যান্য সমস্ত জীবনীগত প্রক্রিয়াকে নিয়ন্ত্রণ করে। মানব মস্তিষ্ক পরিষ্কার নয় এবং প্রতিশ্রুতিশীল একটি মেশিনও না। এটি পরিবর্তনশীলতা এবং সংশ্লেষণী মেশিনের মতো কাজ করে।

যেমন কম্পিউটার সমস্ত প্রক্রিয়া তেমনি মানব মস্তিষ্কও সমস্ত প্রক্রিয়া নিয়ন্ত্রণ করে। তবে কম্পিউটার একটি পরিষ্কার প্রোগ্রাম অনুসারে কাজ করে যেখানে মানব মস্তিষ্ক নিজের পরিবর্তনশীলতা এবং সংশ্লেষণ দিয়ে কাজ করে। কম্পিউটার একই জিনিস একই বার করে তবে মানব মস্তিষ্ক প্রত্যেকটি বার্তা বা ব্যক্তিগত পরিসংখ্যান বিবেচনা করে নিজের কাজ নির্ধারণ করে। কম্পিউটারের মতো মানব মস্তিষ্কের একটি ক্ষমতা হলো বিভিন্ন তথ্যগুলি জড়িত করা।

একটি মানব মস্তিষ্কের সর্বাধিক বড় ক্ষমতা হলো বিশাল তথ্য প্রক্রিয়া। একটি পেশাদার কম্পিউটারের মতো মানব মস্তিষ্ক কাজ করে না। মানব মস্তিষ্কের অনেকগুলি শক্তিশালী ক্ষমতা রয়েছে যা কম্পিউটারে বিদ্যমান নয়। “

See also  মাইক্রোপ্রসেসর কি? What is a Microprocessor in Bengali/Bangla?

কম্পিউটার এবং মানুষের পার্থক্য

পৃথিবী ফুটে উঠছে একটি বিপদে আছেন সেন্টিনেল কম্যুনিটির ওয়েবমেইল দাখিল করেছেন একজন অভিজ্ঞ ব্যবহারকারী। অনেকেই স্বপ্ন দেখেছেন একদিন কম্পিউটার মানুষকে চাকা দেবে। কিন্তু একটি অদ্ভুত কিছু আছে। কম্পিউটার সবসময় স্বতন্ত্র সিদ্ধান্ত নেয় না।

এমনকি মানুষকে প্রশ্নও মনে করতে পারে একটি সিদ্ধান্ত করতে হলে। এটি সবসময় কম্পিউটার নয়, মানুষের সিদ্ধান্ত নেয়। সামান্য একটি পার্থক্য, একটি প্রশ্ন। কম্পিউটার শুধুমাত্র সংখ্যাবিদ তবে মানুষের নিবেদন নেওয়া পর্যন্ত সুসংবদ্ধ সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা আছে।

সুসংবদ্ধ সিদ্ধান্ত নেওয়া কম্পিউটারের হিসেব সমস্যা আর মনোযোগ সমস্যা রটে যাই এভাবে একটি ব্যক্তিগত খুনসুটি হিসাবে মনে হলেও মানুষের ভাবনা একটি গুরুত্বপূর্ণ পরিমাপ পরিমাপ হতে থাকে যা কম্পিউটার ভালভাবে না করতে পারে। এবং একজন সুসংবদ্ধ ব্যবহারকারীর জন্য সবসময় কম্পিউটারের পরিমাণগুলো নিয়ন্ত্রণে থাকা উচিত।”

কম্পিউটার ও মানুষের সামঞ্জস্য

কম্পিউটার সম্পর্কে কথা বলা যায় যে এটি বড় বিশ্বকোষ যেখানে সমস্ত তথ্য সংরক্ষণ করা হয়। এটি হাসিল করা তথ্য সঞ্চয় করে সেটি সর্বোচ্চ সুযোগ দিয়ে মানুষের সামনে পেশ করে। দীর্ঘদিন ধরে কম্পিউটার বিশ্বের সঙ্গে আমাদের জীবনের বেশি অংশ নিয়েছে। এটি নির্ভরযোগ্যভাবে সম্পর্কিত সুযোগ সেসব বহুমুখী তথ্য রয়েছে যা মানুষের জীবন সহজ করে।

তবে কম্পিউটার শুধুমাত্র যথারীতিতে কোনো কিছু করতে পারে না। মানুষ হল সেই যন্ত্র যা কম্পিউটার চালাতে পারে এবং নির্দিষ্ট কাজগুলি করতে পারে। এর মাধ্যমে মানুষ কম্পিউটারের মধ্যে আরো বেশি মূল্যবান তথ্যগুলি ঢুকাতে পারে। তারপরও বলা যায় যে কম্পিউটার মতো ব্যবসায়িক যন্ত্রটি কেবল জুড়ে পড়া নয়, মোটেও শিক্ষার বিভিন্ন ক্ষেত্রে এটি ব্যবহৃত হয়।

তারপরও জীবনের বিভিন্ন নানা ক্ষেত্রে কম্পিউটার সহযোগী হিসেবে ভূমিকা পালন করে এবং মানুষের জীবনকে সহজতর করে। এই কারনেই কম্পিউটার ও মানুষের স্বাভাবিক স্বতন্ত্র সম্পর্ক আছে, কিন্তু এটি প্রয়োজনীয় এবং উভয়ই একটি অ্যাম্প্লিফার। কম্পিউটার ও মানুষের সাথে কাজ করতে হলে সেই সম্পর্কটি সামঞ্জস্যপূর্ণ হতে হবে। “

কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্র কেন?

কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্র হলো একটি মেশিন যা কম্পিউটার বা রোবটের মতো স্বয়ংক্রিয়তা সম্পন্ন হয়। এই নির্বোধযন্ত্র ক্ষুদ্র কিছু স্বচালিত অংশ ব্যবহার করে বিভিন্ন কাজ করতে পারে, যেমন সিএনসি মেশিন বা এউটি পরিষ্কার কর্মচারী। কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্র কেনা হয় কারণ এর সাহায্যে কম্পিউটারগুলি আরও কাজের দক্ষতা উন্নয়ন করা যায়। এটি কম্পিউটার বা রোবট বিভিন্ন কাজের জন্য ব্যবহার করা হয় যেমন নির্মাণ ব্যবসায়, চিকিৎসা, নৌকা নির্মাণ ইত্যাদি।

আর কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্র ব্যবহার করে পৃথিবীর প্রায় সবচেয়ে কঠিন বিষয়গুলি অনুসন্ধান করা যায় যা মানব সম্পদে দ্রুত সম্ভব নয়। অতএব কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্রের ব্যবহার লেনদেন সম্পাদন করে ব্যবসা বা আর্থিক লাভ করা যেতে পারে।

নির্বোধযন্ত্র কী?

দৈনন্দিন জীবনে কম্পিউটার অসংখ্য কাজ সহজ ও দ্রুত করে তুলছে। এই জগতে আমরা উদ্যোগীভাবে কম্পিউটার এবং নির্বোধযন্ত্রের বিভিন্ন ক্ষেত্রে ব্যবহার করি। কিন্তু নির্বোধযন্ত্র কী, এর সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া না থাকলে কম্পিউটার ব্যবহার করা কষ্টকর হতে পারে। সাধারণত, নির্বোধযন্ত্র হল মেশিন লার্নিং অথবা একটি অধীনস্থ মডেল তৈরি করতে ব্যবহৃত একটি কম্পিউটার অ্যালগরিদম।

See also  নিউমেরিক কীপ্যাড (Numeric keypad) কি?

এটি অনেক সময় আমাদের সাহায্য করে ক্রমাগত তথ্য সংগ্রহ ও উন্নয়ন করে। এছাড়া এর মাধ্যমে প্রাকবিস্ময়কর প্রবলেম সমাধান ও প্রেডিকশন করা সম্ভব। নির্বোধযন্ত্রের সাথে আমরা মানব দুনিয়া কেও সম্ভব বেছে নিতে পারি এবং ভবিষ্যতের নির্ভরযোগ্য পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারি। তাই নির্বোধযন্ত্রের অধ্যয়ন করার জন্য নম্রতা ও প্রয়োজন।

কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্রের কাজ ও উদ্দেশ্য

কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্র একটি প্রোগ্রাম যা কম্পিউটারের কাজ নির্দেশ দেয়। জায়গাটি বিশেষ না কেন, যেকোন কাজ নির্দেশ করা সম্ভব। নির্বোধযন্ত্রের কাজ হলো সবচেয়েই সুবিধাজনক উপায়ে কম্পিউটারের সাথে কথা বলা। সহজে জানাতে গেলে, কম্পিউটারের মধ্যে অনেক সফটওয়্যার আছে যা ব্যবহার করে কাজ করা যায়।

কিন্তু এই সফটওয়্যারগুলোর মধ্যে কেবল একটি শক্তিশালী সফটওয়্যার আছে যা কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্র নামে পরিচিত। এটি কম্পিউটারের কাজ নির্দেশ করে এবং কম্পিউটারের ফাংশনগুলো নিয়ন্ত্রণ করে। কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্র প্রোগ্রামিং ভাষা ব্যবহার করে প্রোগ্রামিং করা হয়। এই লেখাটি পড়তে খুব সহজ হবে কারন এটি একটি সাধারণ সঙ্গে সল্প ভাষার একটি প্রয়োজন বিষয়টি নিয়ে উপস্থাপন করেছে।

কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্র ও মানুষের পার্থক্য

কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্র হল এমন একটি প্রযুক্তি যা মানুষের কাছে প্রয়োজন হয় তাদের কাজকর্ম ও অভিজ্ঞতা বাড়ানোর জন্য। এই প্রযুক্তি আমাদের সাহায্য করে বেশ কিছু লাভ দিতে পারে, যেমন একটি ব্যবসায়ে কাজকর্ম দ্রুত এবং সহজে সম্পন্ন করা হয়। কিন্তু কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্রের একটি ব্যাপার হল এটি মানুষের জন্য সবসময় সহজ হতে পারে না। এটি যে ক্ষেত্রে স্বয়ং কার্যকর হয়, সেটা মানুষের জ্ঞানের সাথে তুলনা করা যায় না।

কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্রের স্বচ্ছতা ও দক্ষতায় কোন মানুষের সাথে তুলনা করা যায় না। আমরা একটি কাজ করার সময় যাতে অনেক ধরনের ফলাফল পেতে পারি তার চেষ্টা করি। কিন্তু কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্র একেবারে একটি ফলাফল দেয়া জন্য প্রগ্রাম করা হয়। এটি মানুষের চিন্তা ও নেতৃত্বকে অবলম্বন করে না।

এছাড়াও এই প্রযুক্তির মাধ্যমে কখনও কখনও কিছু ভুল হতেও পারে যার কারণে অনেকটা মানুষের সাথে নুসখুশি হয় না। তবে সবকিছুই নয়, এছাড়াও আমরা কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্রের সাহায্যে নতুন সমস্যা সমাধান করতে পারি যা আপনার মাথা নষ্ট করবে না। বিভিন্ন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান কিংবা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্রের শিখতে তাদের সমস্যা সমাধান করতে পারছে। অতএব কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্র মানবকে নিরাপদ, গুরুত্বপূর্ণ এবং সহজ উপায়ে কাজ করতে সাহায্য করতে পারে।

কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্র এবং বুদ্ধিমান সফটওয়্যার

কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্র হল এমন একটি প্রযুক্তি যা কম্পিউটার সিস্টেমকে নির্দিষ্ট কাজ সম্পাদনে সক্ষম করে। এটি একটি প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ যা কম্পিউটারের বৈশিষ্ট্য এবং সংস্কারগত সংজ্ঞাগুলির উপর গঠিত। কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্র সমস্ত সফটওয়্যারকে নির্দেশ দেয় এবং অর্থনৈতিক কাজগুলি সম্পাদনে সক্ষম হয়। একটি কম্পিউটার নির্বোধযন্ত্র একটি প্রোগ্রাম যা অন্য কোন কাজও করতে পারে না, তবে সে কম্পিউটার সিস্টেমের অন্যান্য সফটওয়্যারকে নির্দেশ দেয় যেমন অপারেটিং সিস্টেম, এ্যাপ্লিকেশন সফটওয়্যার, ইন্টারনেট ব্রাউজার এবং আরও অনেক কিছু।

বর্তমানে বুদ্ধিমান সফটওয়্যার নির্ভরশীল হচ্ছে কেননা এরা অনেক দক্ষতা সম্পন্ন। সফটওয়্যার নির্বাচনে একটি যাথার্থ পরিচয় এবং পুরো পদক্ষেপের একটি বিশ্বস্ত দল এটি আনতে সম্ভব।

Leave a Comment