ডেস্কটপ কম্পিউটার কি?

ডেস্কটপ কম্পিউটার হল একটি পারফেক্ট সম্প্রসারণযুক্ত একটি কম্পিউটার যা সাধারণত একটি চর এবং একটি স্ক্রীন থাকে। এটি বিশাল অন্তর্নিহিত একটি কেসমধ্যে সমাহিত হয় যা নিষ্ক্রিয় করার জন্য কোনও সমস্যা নেই এবং এর ক্ষেত্রে হার্ডওয়্যার, সফটওয়্যার এবং অপারেটিং সিস্টেম ধরে নেওয়া হয়। একটি ডেস্কটপ কম্পিউটার আপনার হয়তো খুবই পরিচিত হবে যদি আপনি অফিস বা হোমের জন্য ব্যবহার করেন। এটি মূলত ভাইরাসের বিরুদ্ধে একটি সুরক্ষিত প্ল্যাটফর্ম হিসাবে ভূমিকা পালন করে এবং এর সাথে আপনি বিভিন্ন কাজও করতে পারেন।

একটি ডেস্কটপ কম্পিউটার ছোট হলেও একটি হিট হওয়াটা মুশকিল, এরপরও আপনি অনেক কিছু বানাতে পারেন। তাছাড়াও, ডেস্কটপ কম্পিউটার বর্তমান যুগের জন্য একটি প্রয়োজনীয় যন্ত্র এবং অনেকেই এটি হার্ডওয়্যার এবং সফটওয়্যার ক্রয় করে একটি কম্পিউটার বিশ্লেষণ করে নেয়।

ডেস্কটপ কম্পিউটার হচ্ছে কি?

ডেস্কটপ কম্পিউটার হল ঐ কম্পিউটার যা কম্পিউটার উপকরণের বিভিন্ন উপাদান যেমন মাউস, কিবোর্ড এবং স্ক্রিন তুলে ধরে বাড়ি বা অফিসে বিভিন্ন কাজে ব্যবহৃত হয়। ডেস্কটপ কম্পিউটার অন্যভাবে স্ট্যান্ডার্ড কম্পিউটার বলা হয়। এই ধরণের কম্পিউটারগুলোর বড়ভাবে উন্নয়নে ফ্লাট স্ক্রীন ডিসপ্লে এবং টাওয়ার কেস ব্যবহার করা হয়। ডেস্কটপ কম্পিউটার একটি স্পেসিফিক যোগাযোগ পদ্ধতি প্রয়োজন হল না, প্রয়োজন হল তথ্য প্রদর্শনের জন্য কম্পিউটার।

এটি প্রথমে গাণিতিক অপারেশন, তথ্য সংরক্ষণ এবং তথ্য সংগ্রহে ব্যবহৃত হয় এবং মূলত পাশাপাশি সে সমস্ত কাজগুলো একটি প্লেটফর্মে পরিচালিত করে। ডেস্কটপ কম্পিউটার মানুষের সম্পর্কিত বিভিন্ন সংযোগ উন্নয়নে একটি গুরুত্বপূর্ণ উপকরণ।

ডেস্কটপ কম্পিউটার হচ্ছে কম্পিউটারের একটি ধরণ যা সাধারণত একটি বর্তমান এবং দীর্ঘস্থায়ী উপযোগের জন্য ব্যবহৃত হয়।

ডেস্কটপ কম্পিউটার হচ্ছে একটি পিসি যা বর্তমান এবং দীর্ঘস্থায়ী ব্যবহারের জন্য তৈরি করা হয়। এই কম্পিউটারে ব্যবহারকারী পিসি টাওয়ারে বসে থাকেন এবং এর সাথে একটি স্ক্রিন এবং ইনপুট ডিভাইস যথাক্রমে কীবোর্ড এবং মাউস ব্যবহার করেন। ডেস্কটপ কম্পিউটারের উদ্দেশ্য হল প্রতিষ্ঠান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ব্যবসা এবং ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য একটি স্থায়ী সিস্টেম তৈরি করা। এই কম্পিউটারে সাধারণত আকারে ক্ষুদ্র স্থান নেই যা পোর্টেবল উপকরণগুলির সাথে তুলনা করে।

ডেস্কটপ কম্পিউটার সাধারণত দীর্ঘস্থায়ী প্রস্তাবিত কাজের জন্য ব্যবহৃত হয় এবং এর কমপ্যাক্ট আকার আপনাকে বিভিন্ন প্রযুক্তি সুবিধাগুলি পেতে দেয়। এছাড়া এই কম্পিউটার গেমিং, সম্পাদনা এবং প্রসিডিঙ্গ, এবং ভিডিও এডিটিং ইত্যাদি কাজের জন্যও ব্যবহৃত হয়। সম্পূর্ণ দ্বিতীয় সম্প্রসারণী কম্পিউটারের সাথে তুলনা করে ডেস্কটপ কম্পিউটার এর কাজ স্থায়ী এবং রেডি টু উজ্জ্বল করা সহজ।

এর মাধ্যমে ব্যবসা, শিক্ষা এবং আইটি কাজ করা যায়। এটি বহমান হতে পারে বা কাঠের একটি সন্দর্ভ হতে পারে।

ডেস্কটপ কম্পিউটার হচ্ছে একটি ইলেকট্রনিক ডিভাইস যেটি আমরা আরামদায়কভাবে ব্যবহার করতে পারি আমাদের কাজ করার স্থানে। এটি কম্পিউটার ও মনিটর দুটি সংযোগ করে একটি একক সিস্টেম তৈরি করে। এর মাধ্যমে আমরা ব্যবসা, শিক্ষা এবং আইটি কাজ করতে পারি। ডেস্কটপ কম্পিউটার হচ্ছে সিস্টেম যা অধিক সম্প্রসারিত, বিস্তৃত এবং কমপ্যাক্ট।

এটি আমাদের কাছে বাস্তব জীবনের একটি কাঠের সন্দর্ভ বা বহমান হতে পারে। বিভিন্ন এপ্লিকেশন এবং সফটওয়্যার সাধারণত ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহার করে চালু হয়। এটি পারফরমেন্স এবং সুবিধাজনক সফটওয়্যার চালানোর সুবিধা প্রদান করে এবং আইটি কাজে অস্বাভাবিক বেশি সুবিধাজনক।

ডেস্কটপ কম্পিউটারের বৈশিষ্ট্য এবং ব্যবহারিকতা

ডেস্কটপ কম্পিউটার আধুনিক জীবনের অপরিহার্য অংশ। এটি সকলের জন্য উপযোগী এবং ব্যবহারকারীদের প্রাসঙ্গিক বিভিন্ন ফিচারের সাথে প্রদান করে। এর মাধ্যমে আমরা মেইল পরে যেতে পারি, সিনেমা দেখতে পারি, অফিসে কাজ করতে পারি এবং বহুল কাজই করতে পারি। এছাড়াও ডেস্কটপ কম্পিউটার বিশাল স্টোরেজ এবং জাপানি ও কোরিয়ান টেকসইশ্মৃতিক প্রযুক্তি নির্ভর করে যা কাজ অনেক সহজ করে আনে।

আমরা বেশিরভাগ কাজ এটি দিয়েই করি এবং আমরা এটির লক্ষ্যে নতুন নতুন সুবিধার তালিকা অভিজ্ঞ করতে জানাই। স্মার্টপোন কিংবা ট্যাবলেটে যে কিছু না সম্ভব তা একটি ডেস্কটপ কম্পিউটার দিয়ে সম্ভব হয়।”

প্রকৃতপক্ষে, ডেস্কটপ কম্পিউটার ঘরে অথবা অফিসে একটি দ্বীপের মতন বসে থাকে।

ডেস্কটপ কম্পিউটার হল একটি বর্ণনামূলক যানবহুল পদক্ষেপ, যা একজন ব্যক্তি যে জায়গায় বসে থাকে সেখান থেকে প্রয়োজনীয় কাজ সম্পাদন করতে পারেন। এই কম্পিউটারের বৈশিষ্ট্য উল্লেখযোগ্য বলতে হল, এর ঝুকে না যাওয়া স্ক্রীন দ্বারা প্রদর্শিত অবস্থা, কুন্ঠগতি নির্বাহের কারণে এটি শব্দই বাহির করে ফেলে ডিজাইনকৃত কীবোর্ড দ্বারা কাজ সম্পাদনের সুবিধা, তারপরেও ডেস্কটপ কম্পিউটারের সম্মুখীন কোন একটি কোন রকম টেকনোলজি নেই, যা কম্পিউটারের কাজকর্ম সুবিধাজনক করে নিতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, সরকারী বিভাগ, ব্যবসা ও প্রতিষ্ঠান বিভাগ, অধ্যাপক বা ছাত্রছাত্রীরা কাজকর্মের জন্য ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহার করেন। এছাড়াও, এটি অফিস বা বাসায় সাড়া দিয়ে দিনভর ব্যবহৃত হয় এবং বিশেষ করে একজন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর জন্য এটি সর্বাধিক সুবিধাজনক।

সম্পূর্ণ নিরাপদ এবং ব্যবহারিক এই কম্পিউটারটির মাধ্যমে কোন একটি ব্যক্তি তাঁর পুর্নাঙ্গ কাজকাজটি সম্পাদন করতে পারেন এবং সেই কাজের জন্য সময় ও পরিশ্রম দুইটি বঞ্চিত না হয়।

See also  কম্পিউটার ব্যবহারের ফলে কী কী সমস্যা হতে পারে?

এর উপর বসে ব্যবহারকারীরা নির্দিষ্ট কাজ করে তাদের কাজ সম্পন্ন করে নেয়।

ডেস্কটপ কম্পিউটার একটি উপকরণ যা বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করা হয়। এটি একটি স্বচ্ছ ও শক্তিশালী প্রযুক্তি যা ব্যবহারকারীর প্রয়োজনীয় কাজ সম্পন্ন করে নেয়। সাধারণত একজন প্রফেশনাল কাজের জন্য ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহার করে থাকেন। এটি একটি ছোট পরিবেশে ব্যবহার করা যায় এবং টেকনোলজি নিয়ে অল্প জ্ঞানও ব্যবহারকারী সহজে ব্যবহার করতে পারেন।

এর একটি বৈশিষ্ট্য হলো এটি নির্দিষ্ট কাজ করার জন্য একটি খুব দক্ষ উপকরণ হিসেবে ব্যবহার করা যায়। উদাহরণস্বরূপ, গ্রাফিক্স ডিজাইন এবং ফটোশপের কাজের জন্য ডেস্কটপ কম্পিউটার খুব ভাল পারফরমেন্স দেখায়। এছাড়াও, ইন্টারনেট সংযোগ এবং অনলাইন ডেটা স্টোরেজের কাজের জন্যও ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহার হয়। শক্তিশালী হার্ডওয়্যারসমূহ এবং সফটওয়্যারসমূহ ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহারে সহায়তা করে এবং এর উপর বসে ব্যবহারকারীরা নির্দিষ্ট কাজ করে তাদের কাজ সম্পন্ন করে নেয়।

এর স্ক্রীন ও কিবোর্ড ডেস্কে এবং একটি টাওয়ার পিসি থাকে যা সংগ্রহ ডিস্কস এবং অন্যান্য উপকরণ থাকতে পারে।

ডেস্কটপ কম্পিউটার হল এমন একটি উপকরণ যা আমাদের প্রতিদিনের কাজে খুবই সহায়তা করে। এর স্ক্রীন উচ্চ রেজোলিউশন এবং বড় হওয়ায় আমরা সহজেই সামান্য থেকে বড় পর্যন্ত কিছু দেখতে পারি। অতএব এটি শিক্ষার্থীদের, অফিস কর্মচারীদের এবং ব্যবসায়ীদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি উপকরণ। এছাড়া এর কিবোর্ড অনেকটা টাইপিং করা সম্পর্কে আমাদের চাইতেও বেশি নির্ভরশীল হওয়া উচিত।

এর সাহায্যে আমরা সামান্য প্রোগ্রামিং আকারের কাজ, লেখালেখি, ফটোশপিং এবং অন্যান্য সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারি। সেক্ষেত্রে এর সাথে রাখা হয় আপনার সব ধরণের ডিস্কস, সিডি এবং অন্যান্য উপকরণ যা সংগ্রহ করতে সক্ষম। এছাড়াও একটি টাওয়ার পিসি একটি ভালো স্টোরেজ সম্পন্ন উপকরণ যা আমরা আমাদের প্রয়োজন অনুসারে কনফিগার করে নিতে পারি। সুতরাং, বিনামূল্যে ব্যবহার করা যাবে না বললেই ডেস্কটপ কম্পিউটারের বৈশিষ্ট্য এবং ব্যবহারিকতা খুব গুরুত্বপূর্ণ।

ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহারের সুবিধা

ডেস্কটপ কম্পিউটার হল বরং একটি বিশাল খাজগিরি যা সিডিপি করে তৈরি হয়ে থাকে। এই কম্পিউটারে বিভিন্ন ধরনের সফটওয়্যার ইনস্টল করে সহজেই ব্যবহার করা যায়। আজকাল সম্পূর্ণ বিপণনে ডেস্কটপ কম্পিউটার অন্য পণ্যের তুলনায় বেশি পছন্দ হয় কারন এটি সাধারণ বাড়ি ব্যবহারে আমাদের জন্য সহজ। বিশেষ করে কাজের জন্য একটি ডেস্কটপ কম্পিউটার একজন প্রফেশনাল ব্যক্তি জন্য খুবই প্রয়োজনীয়।

এটি মানেকে বিভিন্ন ধরনের সুবিধা দেয় যেমন – দেখার জন্য বড় সাইজের স্ক্রীন, শক্তিশালী প্রসেসর, বিশাল স্টোরেজ, শক্তিশালী একটি গ্রাফিক কার্ড এবং এন্টারটেইনমেন্টের জন্য একটি সাউন্ড সিস্টেম। সুসজ্জিত এবং বিশ্বস্ত একটি ডেস্কটপ কম্পিউটার আপনাকে পাওয়ার অনেক ধরণের ফাংশনালিটি দেখা দেয়।

এটি স্বল্প তথ্য সংরক্ষণ এবং ব্যবহারকারীকে পিসি ব্যবহারের মাধ্যমে নিরাপদ করে।

ডেস্কটপ কম্পিউটার সম্পর্কে সকলেরই জানা আছে কেননা এটি একটি উপকারী সরঞ্জাম যা বিভিন্ন ধরণের কাজ করার সুবিধা দেয়। এটি স্বল্প তথ্য সংরক্ষণের জন্য ব্যবহৃত হয় এবং ব্যবহারকারীকে নিরাপদ করে দেয়। এটি একটি স্থায়ী বিবরণ প্রদান করে এবং ডেটা উন্নয়নের জন্য একটি সুন্দর মাধ্যম। ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহারকারীকে কম্পিউটার ব্যবহারের শুরুতেই নিরাপত্তা এবং যন্ত্রপাতি সম্পর্কে শিখায়।

পিসি ব্যবহার করে কাজ করার জন্য একটি উপযুক্ত স্থান ঠিক করা বেশি সহজ হয় এবং ডেস্কটপ কম্পিউটার অধিক কাজকর হয় কারণ এর সিস্টেম একটি ব্যবস্থাপনা করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। একটি স্থায়ী কম্পিউটার ব্যবহার করে বিভিন্ন কাজেই কম্পিউটারে একটি ভাল অভিজ্ঞতা পাওয়া সম্ভব। এই মাধ্যমে আমরা আমাদের উদ্যোগকে সহজ করে নিরাপদ ও উন্নয়ন করার জন্য একটি সুন্দর সমাধান পাওয়া সম্ভব।

এর দ্বারা অনলাইনে সংযোগ তৈরি করা যায় এবং কম্পিউটারের ভিতরে গোপনীয়তা এবং নিরাপত্তার বিষয়টির প্রশিক্ষণ সুলভ করানো যায়।

একটি ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহার করা অনেক সুবিধাজনক। প্রথমতঃ এর মাধ্যমে অনলাইনে কোনো আইটি সেবা নেওয়া যায়। যেমন ইমেইল, সামাজিক মাধ্যম এবং অনলাইনে শপিং করা ইত্যাদি। এছাড়া, ডেস্কটপ কম্পিউটারে আমরা গোপনীয়তা বিষয়ক প্রশিক্ষণ পেতে পারি এবং নিরাপত্তার সমস্যা থাকলে সেগুলো সমাধানের উপায় পাওয়ার সুযোগ থাকে।

এছাড়াও ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহার করে আমরা অনেক সময় বর্বরতা মুক্ত হন এবং ক্রমশঃ কাজ শেষ করতে পারি। সর্বশেষ না হলেও, ডেস্কটপ কম্পিউটারে আমাদের মনে হলে তো চাইলে যেকোনো সফ্টওয়্যার ইনস্টল করা সম্ভব হয় যা আমাদের নিরাপত্তা ও কর্মসূচি চালানোর উপায় প্রদান করে। তবে আমাদের কম্পিউটারে সবসময় ভাইরাস স্ক্যানার ইনস্টল করতে হবে যাতে আমরা অনেক সময় সমাধানহীন সমস্যা থেকে সংরক্ষিত থাকি।

ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহার করে ব্যবসা প্রস্তুতি এবং বিনিয়োগ এবং নির্দিষ্ট প্রকল্প পরিচালনা করা যায় এবং হাবার এর মতন কম্পিউটারের জন্য বহুল ব্যবহার করা হয়।

ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহার করে ব্যবসা প্রস্তুতি এবং বিনিয়োগ এবং নির্দিষ্ট প্রকল্প পরিচালনা করা করার সুবিধা বোঝাই বেদনাদায়ক নয়। হাবার এর মতন কম্পিউটারের জন্য এটি বহুল ব্যবহার করা হয়। একজন উদ্যোক্তা করে দেখতে পারেন যে কম্পিউটার তাকে সমস্যার মুখে লড়তে থাকে যেটি একটি শুধুমাত্র স্পষ্টতা নিশ্চিত করবে এবং ভবিষ্যতে কাজের জন্য এটি উপযুক্ত নয়। কিন্তু ডেস্কটপ কম্পিউটার এটির বিরুদ্ধে একটি সর্বাধিক ক্ষমতাশালী বিকল্প।

See also  ফাংশন (Function) কাকে বলে?

খুব ভালো ক্ষমতা এবং বিশেষজ্ঞতা দেওয়া হয় এতে আপনি আপনার ব্যবসার যা সম্পর্কে ভাবছেন তা প্রক্রিয়াকরণ করতে পারেন এবং এটি আপনার বিনিয়োগের দ্বারা ভবিষ্যতে সফলতা লাভের সম্ভাবনা বাড়িয়ে দিবে। এছাড়াও এটি আপনাকে নির্দিষ্ট প্রকল্প পরিচালনা করতে সহায়তা করবে এবং নিরাপদ রক্ষণাবেক্ষণ ও ডেটা স্টোরেজ করতে সুবিধা দিবে। সুতরাং, একটি ডেস্কটপ কম্পিউটার সবসময় আপনার ব্যবসার উন্নয়নের জন্য সঠিক ভাবে ব্যবহার করতে পারে।

ডেস্কটপ কম্পিউটারের অসুবিধা

ডেস্কটপ কম্পিউটার হল বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত একটি উপকরণ। এটি হাজারো বিভিন্ন প্রোগ্রাম চালাতে ব্যবহৃত হয়, লেখা যায় প্রফেশনাল ডকুমেন্ট বা স্প্রেডশীট এবং রিসোর্স ম্যানেজমেন্টে কাজের ফাইল স্টোর করা যায়। তবে ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহার করতে আমাদের কিছু সমস্যার সামনেও ঢুকতে হয়। এর নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাপনা খুবই অসহজ এবং এর জন্য বিভিন্ন ধরনের সফটওয়্যার নিয়ে কাজ করতে হয়।

তবে যখন আমরা সেই সফটওয়্যারগুলো ভালভাবে ইন্সটল না করি তখন কম্পিউটার ব্যবহার করা দুঃখজনক হয়ে ওঠে। আর যখন এমন সময় হয় যে আমাদের কম্পিউটার উঠানো না যায় অথবা ফাইল করে না হয় তখন আর ক্ষুব্ধি ও বেদনা থাকে আমাদের মনে। ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহার করার জন্য আমাদের সেই সমস্যাগুলো সমাধান করতে হবে।

বৃদ্ধি করে স্পেস লাগতে পারে।

ডেস্কটপ কম্পিউটারের একটি বড় অসুবিধা হল স্পেস সংক্রমণ। জটিল সফটওয়্যার ইনস্টলেশন ও আর্কাইভগুলি কোনও অপ্টিমাইজড নয় এবং কিছুটা জ্বলন্ত করে রাখতে পারে। আপনি এক মুহুর্তের জন্য তার সমস্যার জন্য উন্নয়ন করা না হলে স্পেস সংক্রমণ আপনার সকল ডেটা চিত্র এবং ভিডিও খুব সমস্যায় পড়তে পারে। সর্বনিম্ন স্পেসের কারণে আপনি অবাক উপলব্ধি করতে পারেন যে আপনি একজন ব্যাবহারকারী নন বরং অধিক জনপ্রিয় একজন সংগ্রহশালী নয়।

বিকল্প হিসাবে আপনি একটি ভারী এক্সটার্নাল হার্ড ড্রাইভ ব্যবহার করতে পারেন যা আপনার কম্পিউটারে স্পেস মুক্ত করে তুলবে। আপনি একটি অর্থনৈতিক বিষয় হিসাবে একটি নতুন হার্ডওয়্যারে হেল্প করতে পারেন।

যতক্ষণ না তা নির্দিষ্ট উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হয় ততক্ষণ পর্যন্ত ডেস্কটপ কম্পিউটার আলস্যতা সৃষ্টি করতে পারে।

ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহার করা হলে একটি অসুবিধা হল তা ব্যবহার করা উদ্দেশ্যের উপর নির্ভরশীল। যদি কোন কাজ সম্পাদন না করার জন্য কম্পিউটার ব্যবহার করা হয় তবে ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহারের ফলে মানসিক অলসতা এবং টেনশন হতে পারে। ফলে মানুষের কাজ শেষ না হওয়ার কারণে দিনদিন কাজের দাঁড়ি বাড়ছে। আবার, ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহারের আদিম ফলে মানসিক অলসতা না হওয়া পর্যন্ত চলে।

যেমন, ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহার করে বেরিকোল সমস্যা সমাধান হওয়া সম্ভব। ইন্টারনেট সংযোগ দেওয়ার সমস্যা সমাধান, স্ক্রিনের সমস্যা সমাধান, ফরম্যাট করা ড্রাইভের ডাটা ফিরে পাওয়া, সফটওয়্যার ইন্সটলেশন ও সমস্যার সমাধান ইত্যাদি ডেস্কটপ কম্পিউটারের মাধ্যমে করা লক্ষ্যপ্রাপ্ত। এছাড়া, বিভিন্ন কাজের জন্য ডেস্কটপ কম্পিউটার নির্দিষ্ট হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যার ব্যবহারের সুবিধা পাওয়া যায়। সামনে এসব সুবিধা গুলো আরো আগ্রহী হওয়ার কারণে ডেস্কটপ কম্পিউটারে দিনদিন ইউজার এর সংখ্যা বাড়ছে।

তবে যত ক্ষণ না এর ব্যবহার উদ্দেশ্যি নির্দিষ্ট হবে ততক্ষণ পর্যন্ত ডেস্কটপ কম্পিউটারে বর্তমান কোন সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে।

একটি উন্নয়নশীল কম্পিউটার যখন বিন্যাস করা হয় যাতে বেশিরভাগ গুরুত্বপূর্ণ উপকরণের প্লাগিন প্রয়োজন হয়, একটি ডেস্কটপ কম্পিউটার এমনি দায়বদ্ধ হতে পারে।

ডেস্কটপ কম্পিউটারের বিশেষ অসুবিধা হল এটি উন্নয়নশীল হওয়ার সময় বেশিরভাগ গুরুত্বপূর্ণ উপকরণের প্লাগিন সেটআপ করার প্রয়োজন হয়ে যায়। এটি বেশিরভাগ সমস্যার কারণ হতে পারে, কারণ এই উপকরণগুলি কম্পিউটারের বিপণন্ত অংশের সাথে সম্পর্কিত নয়। উপকরণের প্লাগিন সেটআপ করা বেশ সময় লাগে এবং এর জন্য পেশাদারী জানার প্রয়োজন হয়ে যায়। যদিও ডেস্কটপ কম্পিউটারের সবকিছুই বিশেষ কিছু নয়, এখনও এর উপযোগিতা গুরুত্বপূর্ণ।

ডেস্কটপ কম্পিউটার সবসময় সহজেই অ্যাক্সেস করা যায় এবং সে শক্তিশালী সফটওয়্যার সেটআপ সমর্থন করে যা একটি ল্যাপটপ কম্পিউটারে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না। সচরাচর কাজ করার জন্য ডেস্কটপ কম্পিউটারের ব্যবহার একটি ভাল অভিজ্ঞতা দিতে পারে, কিন্তু যদি একজন পেশাদারী প্রয়োজনীয় সফটওয়্যার ইনস্টল করতে সেটআপ করতে দিনের দিকে যাওয়া হয়, তখন কম্পিউটার ব্যবহার করতে অনেক সময় হারানো যায়। একজন বহুমুখী প্রয়োগকারীর জন্য ডেস্কটপ কম্পিউটারের ব্যবহার কিছুটা কঠিন হতে পারে, কিন্তু আপনি একটি ডেস্কটপ কম্পিউটার এমনভাবে ব্যবহার করতে পারেন যাতে আপনি চাইতেও যে কোনও ছেলেমেয়ে পেশাদারী হতে পারেন।

Leave a Comment