প্রটোকল কি? What is Protocol in Bengali?

প্রটোকল হল একটি নির্দিষ্ট বিধি বা দলিল যা কোনও কাজ বা সংস্থা সম্পর্কে নির্দিষ্ট নিয়ম ও নীতি অনুসারে করা হয়। উদাহরণ সুস্থ পানি সরবরাহের প্রক্রিয়ার জন্য একটি প্রটোকল ব্যবহার করা হয় যা দেশগুলো থেকে পানি আনার রেখা থেকে পানি পরিস্কার করার পর পদক্ষেপ নেয়া হয়। এর ফলে আমরা সুস্থ পানি পাচ্ছি। এই প্রক্রিয়া সহজ নয়, এটি অন্য প্রক্রিয়া গুলোর সাথে মিলিত নয়।

তবে এটি ভাল ফলাফল দেয় এবং নির্দিষ্ট সময়ে পানি পাচ্ছি। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে প্রটোকল হচ্ছে অ্যাপে কনেক্ট করার প্রথম পদক্ষেপ। আমাদের অ্যাপ আমাদের সম্পর্কে নির্দিষ্ট নিয়ম এ কাজ করবে যা একটি নির্দিষ্ট সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে স্বচ্ছ তথ্য দেবে। আমরা কর্তব্যবিমূয়ার জন্য পরামর্শ প্রদান করছি যে আপনারা ভাল প্রটোকল ব্যবহার করুন এবং আপনার সংস্থা বা ফাংশনের জন্য প্রযুক্তি ব্যবহার করার জন্য একটি ভাল প্রটোকল বাছাই করুন।

প্রটোকলের সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান

প্রটোকল বলতে কি বুঝা হয়ে থাকে? সাধারণত, এটি ইন্টারনেট বা কম্পিউটার নেটওয়ার্ক একটি নির্দিষ্ট নিয়মাবলী বোঝাই করে। প্রতিটি ইন্টারনেট এবং কম্পিউটার নেটওয়ার্ক এ নির্দিষ্ট নিয়মাবলী গ্রহণ করে থাকে যা সে সার্ভিস থেকে অনুগ্রহপূর্বক কাজগুলি সম্পাদনে ব্যবহার করে। প্রতিটি কম্পিউটার এ সমস্ত ডাটা ট্রান্সফার হলে অবশ্যই একটি প্রটোকল অনুসরণ করে হতে হয়। এছাড়াও সুরক্ষার দিক হতে প্রতিটি প্রটোকল অন্য একটি পূর্ণাঙ্গ প্রটোকলের অংশ হতে পারে।

ইংরেজিতে প্রটোকল একটি শব্দ যা শব্দকেই বোঝায়। কেউ যদি বলে আমাদের প্রটোকলটি অফলাইনে এরর দেখায় তাহলে এরর বা সমস্যার সমাধান এমনি একটি নির্দিষ্ট নিয়মাবলী আছে যা পালন করা হয়েছে। তাই একটি প্রটোকলের সবচেয়ে বেশি প্রযোজ্যতা এবং একটি সুরক্ষিত ভবিষ্যতের প্রত্যাশী হওয়া।

প্রটোকল হল কী?

প্রটোকল বা প্রোটোকল বোঝার জন্য হিসাবে আমরা সাধারণত ইন্টারনেট ব্যবহার করি। ইন্টারনেট ব্যবহার করতে গেলে যেকোনো কম্পিউটার সিস্টেমের সাথে একটি সংযোগ স্থাপন করা হয়। এই সংযোগ স্থাপন করতে হয় একটি নির্দিষ্ট এবং প্রণালীজাতকৃত যুক্তি বা পদ্ধতি প্রয়োগ করে। এই যুক্তি কেবল কম্পিউটার সিস্টেমের মধ্যে সমঝোতা বিনিময় করা হয় না, বরং এটি রেখে দেওয়া নির্দিষ্ট নির্দেশাবলী যা নিরবিচ্ছিন্নভাবে কাজ করবে।

প্রটোকলের উদাহরণ হলে HTTP, SMTP, FTP, এবং TCP / IP। এটি একটি ভাসার সম্পর্কে হলে অনেক সহজতার থেকে বুঝা সম্ভব। এটি ভাসার মধ্যে স্থাপিত দেওয়া নির্দিষ্ট পদ্ধতি যা দ্বিতীয় পদ্ধতিতে মাছ সংগ্রহ করার জন্য দরকার। এই ভাসা পদ্ধতি হল একটি প্রটোকল।

স্বচ্ছতার কারণে সবার মধ্যে একটি রূপান্তর করা হয়, যে সমস্ত মেশিন একই ভাবে সমান উত্তর দেবে এবং নির্দিষ্ট রকমের ত্রুটি সমাধান নিশ্চিত করবে। এই রূপান্তর সবার কাছে একইভাবে সম্ভব করতে হবে কারণ এটি একই পদ্ধতিতে পূর্বাবস্থা বিশ্লেষণ এবং বিভিন্ন মেশিনে সমস্ত উত্তর দেবে জন্য বাধ্যতামূলক হয়। এখন আপনি জানেন প্রযুক্তি প্রটোকল সম্পর্কে কীভাবে কাজ করে এবং কিভাবে এর মাধ্যমে উইন্ডোজ, ইউনিক্স, লিনাক্স এবং ম্যাক অপারেটিং সিস্টেমের চলমান তথ্য সম্প্রসারণ সম্পন্ন করা হয়। “

প্রটোকল কেন গুরুত্বপূর্ণ?

প্রটোকল হলো একটি নির্দিষ্ট নিয়মাবলী বা ধারাবাহিক ক্রিয়াকলাপ, যা কোনো কাজ বা প্রক্রিয়ার সময় অনুসরণ করে নিয়ন্ত্রিত করে। প্রটোকলগুলো আমাদের নিউরাল নেটওয়ার্ক থেকে প্রতিনিধিত্ব করে এবং সাধারণত আমরা আমাদের পরিবেশের সাথে ব্যবহার করি। প্রত্যেকটি সংক্ষিপ্ত উদাহরণ যেমন ওয়েব ব্রাউজার প্রতিদিন আমরা প্রতিযোগিতামূলক নিয়ন্ত্রণ সহজতর করতে প্রটোকল জানি। প্রতিটি নেটওয়ার্ক, কম্পিউটার বা সফটওয়্যার একই সঙ্গে কথা বলার জন্য নির্দিষ্ট প্রটোকলের ব্যবহার করে।

বিশেষভাবে এটি নিয়ন্ত্রণের সিদ্ধান্ত নিয়ে কাজ করে যা প্রতিস্থাপনে সহায়তা করে। এটি যে প্রক্রিয়া চালানোর উপযোগী তা উন্নয়ন করে। প্রক্রিয়ার যেকোনো সাধারণ ভুল থাকলেও প্রটোকল কাজ সম্পন্ন করতে জারি দেয়। তাই এটি জীবনমুখী পরিবেশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি ধারাবাহিক ক्रিয়াকলাপ।

See also  প্যান কি? প্যান এর বৈশিষ্ট্য কী কী?

প্রটোকলের জন্য ব্যবহৃত মূলত প্রোটোকল

প্রটোকল হল একটি নির্দিষ্ট নিয়ম ও নির্দেশনা সমূহের সেট। এটি কোন সিস্টেম, নেটওয়ার্ক, ডিভাইস এবং আরও অনেক কিছুর সাথে সম্পর্কিত হতে পারে। প্রতিটি উপাদান পরিপূর্ণ এবং সম্পূর্ণ হতে হবে। সম্ভবত সবচেয়ে জনপ্রিয় প্রোটোকল TCP / IP (টি সি পি আর) এটি ইন্টারনেটের জন্য ব্যবহৃত হয়।

এছাড়াও, SSH (সেকিউর শেল) প্রোটোকলটি নেটওয়ার্কস এবং কম্পিউটার সিস্টেমস এর জন্য ব্যবহার করা হয়। আরও উল্লেখযোগ্য প্রোটোকলগুলি আছে যেমন FTP (ফাইল ট্রান্সফার প্রোটোকল), HTTP (হাইপারটেক্সট ট্রান্সফার প্রোটোকল), এবং SMTP (সিম্পল মেইল ট্রান্সফার প্রোটোকল)। ব্যক্তি ও কোম্পানী একটি সিস্টেম বা নেটওয়ার্ক স্থাপনের পর তার প্রোটোকল বাছাই করে থাকে। একটি ভাল প্রোটোকল নিরাপদ এবং সঠিক কাজ করতে সক্ষম হতে হবে।

কিভাবে প্রটোকল কাজ করে?

প্রটোকল হল ইন্টারনেট জগতে তথ্য পাঠানোর জন্য একটি নির্দিষ্ট নিয়মাবলী। যেমন আপনি ইমেইল করতে চাচ্ছেন বা ওয়েব পেজ দেখতে চাচ্ছেন তখন আপনার কম্পিউটার একটি বিশেষ প্রটোকল ব্যবহার করে সে তথ্য একটি কম্পিউটার থেকে আরেকটিতে পাঠানো হয়। এটির মেধার দ্বারা সে প্রতিক্রিয়া পেয়ে যায় এবং তথ্য একত্রীকরণ হয়। একটি জরুরি বিষয় হল নির্দিষ্ট প্রটোকলের মেধার হলেই তথ্য পাঠানো হয়।

এই প্রটোকলগুলি অন্য অন্য হতে পারে, যেমন HTTP প্রটোকল ও HTTPS প্রটোকল। যেমন HTTP প্রটোকল দ্বারা ওয়েব পেজ লোড করা হয় এবং HTTPS প্রটোকল সম্পর্কে আপনি শুনেছেন, এটি নিরাপদ ও সুরক্ষিত করার জন্য এনক্রিপ্টেড তথ্য ব্যবহার করে। সুতরাং, প্রটোকলগুলি ভিন্ন ভিন্ন একদিক থেকে কাজ করে তথ্য পাঠানোর জন্য নির্দিষ্ট নিয়মাবলী রেখে। এর মাধ্যমে তথ্য সম্পর্কে অনুমান করা হয় এবং এটি ঠিক সেই অংশে যা সম্পর্কে আপনি জানতে চান।

সুতরাং, প্রটোকল জীবনপরিকল্পনা এবং তথ্য পাঠানোর এক গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম।”

প্রটোকলের বিভিন্ন ধরন

প্রটোকল হলো ডিজিটাল সংযোগ স্থাপনের জন্য ব্যবহৃত একটি পরিকল্পনা। কার্যকারী সাধনে প্রতিটি প্রটোকল ডেটা স্ট্রাকচার এবং প্রযুক্তিপরিচালিত সরঞ্জামের সংশ্লিষ্টতা প্রণয় করে। প্রটোকল একটি বক্সের মত যা বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করা যায়। কয়েকটি পরিচিত প্রটোকল রয়েছে যা ইন্টারনেটের উদ্বেগ দেয়।

এগুলো হলো হাইপারটেক্সট ট্রান্সফার প্রোটোকল (HTTP), ইন্টারনেট প্রোটোকল (IP), ডোমেইন নেম সিস্টেম (DNS) এবং সিকিউর সকেট লেয়ার (SSL)। ব্যবহারকারী একটি ওয়েবসাইট ভিজিট করলে, তার ব্রাউজার অনুসারে একটি গোপনীয়তা সংরক্ষিত সংযোগ স্থাপন করতে হয় যা ডোমেইন নেম সিস্টেমে গিয়ে লক্ষ্য করা হয়। এছাড়া সিকিউর হাইপারটেক্সট ট্রান্সফার প্রোটোকল (HTTPS) প্রযুক্তি ব্যবহার করে অগ্রাধিকার দখল থেকে ব্যবহারকারীদের সুরক্ষিত রাখে। সাধারণত, এই প্রটোকলগুলি একটি গোপনীয় ও সুরক্ষিত ইন্টারনেট প্রযুক্তি সংযোগ স্থাপিত করার জন্য সেট করা হয়েছে।

কন্ট্রোল প্রটোকল (Control Protocol)

কন্ট্রোল প্রটোকল হল এমন একধরণের প্রটোকল যা একটি নেটওয়ার্কের সমস্ত মোটামুটি নির্দেশ দেয়। এই প্রটোকলটি কম্পিউটার নেটওয়ার্ক থেকে সিস্টেমগুলিতে মেসেজ পাঠানোর জন্য ব্যবহৃত হয়। সাধারণত, নেটওয়ার্কের বিভিন্ন মুদ্রার মধ্যে সংযোগ স্থাপন এবং সমস্ত ফাংশনের নির্দেশের জন্য দুর্বল প্রটোকল ব্যবহার করা হয়। কন্ট্রোল প্রটোকল প্রথমত তথ্য পাঠানোর জন্য প্রস্তুত হয় এবং এটি নেটওয়ার্ক থেকে সিস্টেমগুলিকে সংযুক্ত করে তাদের সাধারণ কার্যকলাপ নির্দেশ করে।

নেটওয়ার্ক সংযোগ তৈরি করার জন্য কন্ট্রোল প্রটোকল একটি গুরুত্বপূর্ণ পূর্বাভাস বিন্যাস করে। এই প্রটোকল লোকাল অথবা রিমোট সিস্টেমগুলিতে কাজ করতে পারে এবং এটি প্রায় সমস্ত নেটওয়ার্ক প্রোটোকলের মধ্যে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়। এটি নেটওয়ার্কের সুরক্ষা ও নিরাপত্তা বৃদ্ধি করে এবং নেটওয়ার্কের ব্যবহারকারীদের জন্য বিভিন্ন প্রভাবশালী ফিচার উপলব্ধ করে।

See also  কমিউনিকেশন সিস্টেম কত প্রকার ও কী কী?

ইন্টারনেট প্রটোকল (Internet Protocol)

ইন্টারনেট সম্পর্কে আমাদের অভিজ্ঞতা হলেও, বোঝার জন্য প্রয়োজনীয় প্রটোকলের বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ। প্রথম আলোচনা থেকেই প্রটোকল পরিচিত হওয়া হয়েছে। একটি প্রোটোকল হল একটি সেট উপাদান, যা কোন কিছু সম্পন্ন করার ক্ষমতা দেয়। ইন্টারনেট প্রটোকল হল সেট উপাদানের সমন্বয় যা ইন্টারনেট ব্যবহার করে একটি ডিভাইস থেকে অন্য ডিভাইসের সাথে তথ্য পাঠানোর হেতুসেক্রি করে।

একটি ইন্টারনেট কনেকশন প্রতিটি ডিভাইসের জন্য একটি আইপি ঠিকানা থাকে। ইন্টারনেট প্রটোকলের বিভিন্ন ধরনগুলি হল IPv4 এবং IPv6। IPv4 এখন পুরাতন বলে বিবেচিত হচ্ছে, কারণ এতে ইংরেজি অক্ষরগুলির সংখ্যা বিস্তৃতি শেষ হয়ে যাচ্ছে। এর সাথে তুলনামূলকভাবে, IPv6 কিছুটা নতুন, অধিক সুরক্ষিত এবং ডিভাইসের সংখ্যার সমস্যার সমাধান করে।

In the context of the internet, we may be familiar with the term protocol, but it is important to understand the different types of protocols for conveying information over the internet. From the initial discussion, protocols were introduced to us. A protocol is a set of elements that allows something to be accomplished. Internet protocol is the coordination of these elements used to communicate information from one device to another via the internet. Each device has an IP address for an internet connection. The different types of internet protocol are IPv4 and IPv IPv4 is now considered outdated because the number of English characters is being exhausted. As a result, in comparison, IPv6 is somewhat new, more secure and solves the problem of device numbers.

ট্রান্সপোর্ট প্রটোকল (Transport Protocol)

প্রটোকল একটি নির্দিষ্ট ধরনের নির্দেশাবলী যা ডেটা ট্রান্সফার করা হয়। এর মাধ্যমে আমরা ইন্টারনেট সংযোগ ও ডেটা স্থানান্তর করতে পারি। এর মধ্যে ট্রান্সপোর্ট প্রটোকল হল সবচেয়ে বিশাল প্রোটোকল লেয়ার মধ্যে যা ডেটা ট্রান্সফার করতে ব্যবহৃত হয়। এর কাজ হল সঠিক সংযোজন, ডেটা স্থানান্তর ও প্রোটোকল মান সম্পর্কে নির্দেশ দেয়া এবং নিয়ন্ত্রণ রাখা।

TCP এবং UDP হল উভয়টি প্রধান ট্রান্সপোর্ট প্রোটোকল। UDP হল একটি ছোট লেভেল প্রোটোকল যা ব্যবহারকারীর কাজ হল ছোট পরিমাণের ডেটা ট্রান্সফার করা। এর মধ্যে নিয়ন্ত্রণ খুব কম এবং সংযোগ ছিদ্রমুক্ত। TCP হল বড় লেভেল প্রোটোকল যা ব্যবহারকারীকে নিয়ন্ত্রণ ও স্থিতির নিয়ন্ত্রণ প্রদান করে।

TCP প্রোটোকল টি ডেটা স্থানান্তর সমর্থন করে। TCP বড় পরিমাণের ফাইল ডেটা ট্রান্সফার করতে ব্যবহৃত হয়। এই প্রোটোকল একটি মার্গিন প্রোটোকল ছাড়া চালু করা যায় না।

অ্যাপ্লিকেশন প্রটোকল (Application Protocol)

অ্যাপ্লিকেশন প্রটোকল (Application Protocol) হল কম্পিউটার নেটওয়ার্ক এবং ইন্টারনেট সংযোগের জন্য ব্যবহৃত প্রোটোকল। এটি একটি ব্যবহারকারী সফটওয়্যার প্রোটোকল, যা ওয়েব ব্রাউজার, ইমেল ক্লায়েন্ট, চ্যাট সফটওয়্যার এবং অন্যান্য অ্যাপ্লিকেশনগুলির মধ্যে মেলে চলে যায়। বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ্লিকেশন প্রোটোকল রয়েছে যেমন HTTP, FTP, SMTP, POP3 ইত্যাদি। এই প্রোটোকলগুলি সব থেকে কার্যকরিতার স্থিতিতে সংযুক্ত অন্য প্রোটোকলগুলির মেধা নির্ভর করে।

প্রতিটি অ্যাপ্লিকেশন প্রোটোকল প্রত্যেকটি ডেটা বিন্যাস নিয়ে কাজ করে এবং নিষ্পত্তিতেও সেটি নির্ধারিত করে থাকে। এর মাধ্যমে ব্যবহারকারী তথ্য স্বচ্ছতার সাথে পাঠায় এবং সংগ্রহ করে। প্রত্যেকটি ধরনের অ্যাপ্লিকেশন প্রোটোকলের মূল কাজ হল একটি কনভেনশন সেট স্থাপিত করা যা উপস্থাপন প্রদান করে। “

Leave a Comment