ফর্মুলা ও ফাংশনের মধ্যে পার্থক্য কি?

ফর্মুলা এবং ফাংশন উভয়েই প্রোগ্রামিং এবং গাণিত এ ব্যবহৃত হয়, সমান হয় এদের উপযুক্তি থেকে। তবে, ফর্মুলার একটি মৌলিক পার্থক্য হলো আমাদের যেকোনো ধরণের ডাটার জন্য নির্দিষ্ট একটি মান অনুদেশ করতে হয়। ফাংশন একটি প্রোগ্রামিং শুরুতে ডিফাইন করা হয় এবং এটি একটি পরিবর্তনশীল মান প্রদান করে অন্যান্য কন্টেক্সটে ব্যবহার করার জন্য, আর নির্দিষ্ট মান ব্যবহার করে তা পরিবর্তন না করে কাজ করার জন্য ফর্মুলা ব্যবহার করা হয়। উভয়টি একই মূলক ইনপুট এবং একই আউটপুট দেয়, তবে ফর্মুলার মাধ্যমে প্রক্রিয়াজাতকরণ একটু নিরলে হয় সুমারে ফাংশন থেকে।

সুতরাং, ফর্মুলা একটি স্টেটলেস প্রোগ্রামিং নির্দেশক যা প্রক্রিয়াজাতকরণের সময় দ্বিতীয়বার উল্লেখ করার প্রয়োজন নেই। সমস্তকিছুই বিবেচনার পর, ফর্মুলা এবং ফাংশন উভয়েই তাদের উপযুক্তিতে সমানতা লক্ষ করা যায়।

ফর্মুলার অর্থ কি?

ফর্মুলার অর্থ হল, গণিতে ব্যবহৃত একধরনের গাণিতিক সমীকরণ বা নিয়ম যা একটি উদ্দেশ্যবিশিষ্ট হিসাবের জন্য ব্যবহৃত হয়। এটি একটি নির্দিষ্ট উদ্দেশ্যের জন্য বেশ কিছু গাণিতিক প্রতিস্থাপন আবিষ্কার করে ফেলে, যা একটি সিদ্ধান্ত বা নির্দেশ দেয়। ফর্মুলা একটি উপায় যা একটি নির্দিষ্ট নম্বর বা সংখ্যাময় তথ্য ব্যবহার করে একটি নতুন সংখ্যা বা পরিমাণ নির্নয় করে। এটি নতুন নির্ণয় করার জন্য পরিমাপের উপকরণ হিসেবে ফলস্বরূপ প্রাপ্ত তথ্য ব্যবহৃত করে।

সংখ্যাময় হিসাবের সময় ফর্মুলা একটি প্রক্রিয়া যা উপর উপর নির্ভর করে এবং বিভিন্ন সাধারণ অপারেশন যেমন যোগ, বিয়োগ, গুন বা ভাগ ব্যবহার করে যায়। সাধারণত, একটি ফর্মুলা বেশিরভাগ সময় সেটি ব্যবহার করে যাচাই করা হয় যে কোন নম্বর বা পরিমাণ বর্গ বা ঘন হলে সেই নম্বর একটি ফর্মুলা ব্যবহার করে নির্ণয় করা যায়। ফর্মুলা ব্যবহার করে সময় ও পরিশ্রম দুইটাই থেকে বেশি পরিচয় দেয় কারণ এটি পর্যাপ্ত সংখ্যাময় হিসাবের জন্য সহজ এবং দ্রুত। সূত্র থেকে নতুন তথ্য নির্ণয় করা অনেক সমস্যামুক্ত এবং উপযোগী যা এখন আমাদের নিউরাল নেটওয়ার্কের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

ফর্মুলা সংশ্লিষ্ট উদ্দেশ্য নির্দেশনা দিলে সেগুলো লক্ষ্য করে এটি ব্যবহার করা হয়। “

ফর্মুলার প্রকার

ফর্মুলা হলো একটি গাণিতিক অভিব্যক্তি যা সংখ্যা বা অংকের ভিত্তিতে গঠিত হয়। এটি কোন কাজ করার জন্য একটি নির্দিষ্ট পদক্ষেপ বা ফর্মুলার ব্যবহার করে ফলাফল নির্ণয় করা হয়। মানুষের জীবনে ফর্মুলার ব্যবহার অনেক উপকারী এবং গুরুত্বপূর্ণ। ফর্মুলার সাধারণত দুই প্রকারে ভিন্ন ভিন্ন হয়।

একটি হলো উদাহরণস্বরূপ ফর্মুলা এবং অন্যটি হলো সামান্য ছেলেমেয়ের বর্তমানে বিষয়টি প্রকাশ করার সাধারণ পদ্ধতি বা নমুনা ফর্মুলা। তবে ফর্মুলার প্রকার নির্ধারিত করার জন্য তার ব্যবহার বা বৈশিষ্ট্য খুব গুরুত্বপূর্ণ যা ব্যবহারকারীর নির্ধারিত করতে শক্তি দেয়।

ফর্মুলা ব্যবহারের উদাহরণ

ফর্মুলা হলো গণিতের একটি ব্যবহারমূলক সংজ্ঞা যা ভেক্টর, স্কেলার এবং ম্যাট্রিক্সের তথ্যগুলো সহজেই সম্পাদন করে। ফর্মুলা সম্পর্কে সম্পূর্ণ জ্ঞান না থাকলে কম্পিউটারে সেরা ফলাফল পেতে অসম্ভব। ফর্মুলা উদাহরণ ও উপযোগিতা নিয়ে কথা বলতে গেলে, একটি সহজ প্রশ্ন দেওয়া যেতে পারে যেমন, “20 টি জন ব্যক্তি একটি দফা সম্পন্ন করলে 45 মিনিটে করে, তাহলে একজন ব্যক্তি একই দফা সম্পন্ন করবেন কত মিনিটে?” এই ধরনের সমস্যা সমাধান করার জন্য ফর্মুলা ব্যবহার করা হয়। ফর্মুলার অনেক উদাহরণ রয়েছে।

উদাহরণস্বরূপ, একটি ব্যবসায় কম্পিউটারের সাহায্যে দৈনিক বিক্রয় রেকর্ড সম্পর্কে ডেটা সংগ্রহ করছে। যখন নতুন কোনো রেকর্ড সিস্টেমে এন্ট্রি হয় তখনই অটোমেটিক ভাবে ফর্মুলা ব্যবহার করে বের করে যায় গড় দৈনিক বিক্রয় এবং মোট বিক্রয়ের টাকার পরিমাণ। সম্ভবত এটির মাধ্যমে আপনি ইন্টারনেটে একটি গুরুত্বপূর্ণ রকম অংক ঘনত্ব/ সঞ্চয় গণনা করার জন্য ব্যবহার করা হয়। একটি উদাহরণে, আপনার প্রয়োজন সত্যিকারের অন্তর্ভুক্তির আকার গণনা করতে হতে পারে, এখানে ব্যবহৃত হল ফর্মুলা V= (4/3) * pi * r^3, যেখানে V হল আকারের ভলিউম, এবং r হল গোল মডলের ব্যাসার্ধ।

See also  কম্পিউটার সিস্টেম (Computer System) কি? কম্পিউটার সিস্টেম এর বিভিন্ন অংশ।

সোভ্যাবস্থার জীবনে ফর্মুলার কোনও উপযোগ থাকতে পারে এমন কথোপকথন আমরা সমাধান করেছি। প্রকৃতপক্ষে, ফর্মুলার ব্যবহারের চেষ্টা করে স্বাস্থ্যকর স্থানীয়, স্ববাহত, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে বিনামূল্যে ডেটা সংরক্ষণ ও প্রক্রিয়া সহজ হতে পারে। প্রাক্তন শিক্ষার্থীর উদাহরণের মাধ্যমে ফর্মুলার ব্যবহার ও উপকারিতা প্রতিনিধিত্ব করা হলো।

ফাংশন কি?

ফাংশন হল প্রোগ্রামিং একটি উপাদান যা নির্দিষ্ট কাজ সম্পাদনের জন্য ব্যবহার করা হয়। এটি প্রোগ্রামের একটি উপ-অংশ যা কোন একটি কাজ সম্পাদনে ব্যবহার করা যায়। একটি ফাংশন বা ফাংশন লাইব্রেরি একটি ক্ষেত্রে কম্পিউটার প্রোগ্রাম তৈরি করতে ব্যবহৃত হয়। একটি ফাংশন কোন নির্দিষ্ট সেট অফ ইনপুট পেয়ে একটি সেট অফ আউটপুট তৈরি করে তা নির্দিষ্ট করে।

প্রোগ্রামিং ভাষার সমস্ত ফাংশনের নাম একটি স্ট্রিং হতে পারে। একটি ফাংশন ব্যবহার করা প্রথমে ফাংশনটি ডিফাইন করা থাকে এবং এর পর কোন কাজ সম্পাদন করার জন্য ফাংশনটি কল করা যায়। আমরা নির্দিষ্ট একটি ফাংশনের মাধ্যমে নির্দিষ্ট সেট অফ ইনপুট দিলে উপযুক্ত ফলাফল পেতে পারি। উদাহরণস্বরূপ, আমাদের কোড যখন উপযুক্ত সংখ্যা দেওয়া হবে তখন তাকে বর্গমূলে রূপান্তর করে এবং উপযুক্ত ফলাফল দেখাবে।

এই টাইপের ফাংশনগুলি সম্পাদন করার জন্য বিভিন্ন প্রোগ্রামিং ভাষা ব্যবহৃত হয়। প্রোগ্রামে বিভিন্ন স্টেটমেন্ট লিখে একটি ফাংশন লিখা একটি সাধারণ পদক্ষেপ। একটি ফাংশন ভিন্নভাবে কল হয়েও প্রোগ্রামের লজিক সঠিকভাবে কাজ করে যেখানে একই কিছু বারবার নির্দিষ্ট হয়। একটি ফাংশন বিভিন্ন প্রোগ্রাম ইঞ্জিন থেকে সম্পাদন করা যায়, যা সরল করে আমরা একটি ফাংশন লিখতে পারি।

ফাংশনের অংশ

ব্লগের এই অংশে আমরা জানব ফাংশন কি? সাধারণত বলতে গেলে, ফাংশন হচ্ছে এমন একটি কাজ যা প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজে বিভিন্ন ভ্যালু এবং কন্ডিশনের ভিত্তিতে করা হয়। অনেকে এটির উদাহরণ দিয়েও জানেন না তাই আমরা একটি উদাহরণ নিয়ে দেখতে পারি। মনে করুন আমাদের কাছে দুটি সংখ্যা আছে। আমরা চাইলে দুটি সংখ্যাকে যোগ করতে পারি।

এখন যদি আমরা একটি ফাংশন লিখি যা দুটি সংখ্যাকে যোগ করে তার ফলাফল আমাদেরকে রিটার্ন করে তখন আমরা দুটি সংখ্যাকে আলাদা আলাদা ভেবে লিখার প্রয়োজন হবে না। সেই ফাংশনটি হল সাধারণত add নামক ফাংশন। এইভাবে ফাংশন ব্যবহার করে প্রোগ্রামিং করা হয় এবং তার সাহায্যে কোড সংগঠিত এবং অন্য প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের মতো রচিত করা হয়।

ফাংশন ব্যবহারের সুবিধা

ফাংশন কি? ফাংশন হলো একটি প্রোগ্রামিং ধারণা যা প্রোগ্রামের কিছু বিশেষ কাজ সহজে করে দেয়। এটি প্রোগ্রাম লিখার সময় সময়ের প্রয়োজন অনুযায়ী কল হবে। আপনি চাইলে কোন ফাংশনের জন্য প্যারামিটার দিতে পারেন, এবং ফাংশনের মাধ্যমে ক্রমান্বয়ে প্রতিফল পেতে পারেন। ফাংশন ব্যবহার করা প্রোগ্রাম লেখার প্রধান সুবিধা হলো প্রোগ্রামে দুটির মত একই কাজ পুনরাবৃত্তি করতে হবে না।

এইটা সময় এবং মেমরি ওভারহেড কম করে। এছাড়াও প্রোগ্রামিং লেখার সময় ফাংশন ব্যবহার করলে প্রোগ্রামের পেরেএককতা বৃদ্ধি পাবে। একটি ফাংশন ব্যবহার করা একটি সিদ্ধান্ত নিতে থাকতে পারে প্রোগ্রামটি এর কাজ ভাল করার জন্য এবং ইউজারদের পাশাপাশি সমস্যার সমাধানের সুযোগ প্রদান করার জন্য। ফাংশন ব্যবহার করতে প্রোগ্রামটির ফাইল সাইজ সহজে কম করা যায় এবং প্রোগ্রামের কোড মডিউলারাইজেশন এর মাধ্যমে সমাধান করা সহজ হবে।

এছাড়াও, ফাংশন পরীক্ষামূলক কওড লেখার সুবিধা প্রদান করে যা কিভাবে ফাংশন সবসময় সঠিকভাবে কাজ করে সেটা প্রমাণ করে।

See also  CPU কি? সিপিইউ কে কয় ভাগে ভাগ করা যায়?
সংক্ষেপে বলতে গেলে, একটি প্রোগ্রামে ফাংশন ব্যবহার করার প্রধান সুবিধাও হলো রিউজেবিলিটি এবং প্রোগ্রামের পরামর্শ এবং সমাধানের জন্য। ফাংশন ব্যবহার করে প্রোগ্রামারদের একটি ঠিকানার উপর পরিষ্কারতা থাকে এবং পুনরাবৃত্তি করতে হবে না। এছাড়াও, ফাংশন ব্যবহার করে বাকি একটি প্রোগ্রামে ব্যবহৃত রম্বার কোড টি পুনঃই ব্যবহার করা যায়।

এটি মেমরি ওভারহেড সম্পর্কে চিন্তা করার প্রয়োজন নেই। Overall, ফাংশন ব্যবহার করে একটি প্রোগ্রামের লিস্টিং সহজ করা সম্ভব এবং প্রোগ্রামের যথাযথ কাজের জন্য সহজে ক্রমানুক্রমিক প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়।

ফর্মুলা ও ফাংশনের পার্থক্য কি?

ফর্মুলা ও ফাংশন প্রোগ্রামিং এর দুটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় যা অধিকাংশ প্রোগ্রামারদের কাজে লাগে। এদের মধ্যে ফর্মুলা হচ্ছে মান বা ভ্যালু এর একটি সমীকরণ, যা ব্যবহার করে আমরা কোন একটি মান বা ভ্যালু সহজে বের করতে পারি। এরকম একটি উদাহরণ হল, কোনো ব্যক্তির উচ্চতা ১৬০ সেমি হলে তার ওজন হবে কত কেজি সে বের করতে হলে আমরা প্রথমে “উচ্চতা/100” করতে পারি এবং তারপরের সমীকরণ ব্যবহার করে এর মান বের করতে পারি। দুইটি সমীকরণের মধ্যে পার্থক্য হচ্ছে ফাংশনগুলি কোন মান বা ভ্যালুকে যথাক্রমে মোটামুটি একই ভাবে প্রকাশ করবে তবে ফর্মুলাগুলি সাধারণত আপনার কিছু ইনপুটের ভিত্তিতে কাজ করে এবং ফাংশনগুলি সাধারণত একটি ইনপুট নেয় এবং একটি আউটপুট ফেরত দেয়।

বার্তা হল, ফর্মুলা একটি ইঞ্জিন, যেটি সিস্টেমটি চালিয়ে দেয় এবং ফাংশন একটি শিঙ্গপোর্ট থেকে কোন ব্যাপার ঘটানোর জন্য ব্যবহৃত যায়।

ফর্মুলার সুসংগঠন

ফর্মুলা ও ফাংশন দুটি সমস্যার সমাধান করার জন্য ব্যবহৃত উপায়। ফর্মুলার মাধ্যমে আমরা প্রয়োজনীয় গণনা করতে পারি যা জ্ঞান বা দূরদান্ত প্রয়োজন করে। অন্যদিকে, ফাংশন একটি নির্দিষ্ট কাজ সম্পাদন করে সেটি যেকোন সঙ্গে ব্যবহার করা যায়। এই উভয়টি ধরনের অঞ্চলকে সম্পন্ন করতে কোনো একটি স্টেপ দিকে বিষয়টি চালায়।

ফর্মুলার সুসংগঠন পুরু কাঠামো তৈরি হলে পরবর্তী ব্যবহারে সময় এবং প্রফিট দুটো আরো বাড়াতে সাহায্য করে। ফাংশন একটি মৌলিক সমস্যার সমাধান যা পরে বেশিরভাগ ব্যবহারকারীদের জন্য ব্যবহার সুলভ করে তোলে। একটি সমস্যার হাজার হাজার সমাধানের উপায় থাকলে ফর্মুলা এবং ফাংশন একবারে ঠিক পথটি নির্বাচন করতে সাহায্য করে।

ফর্মুলা ও ফাংশন ব্যবহারের পার্থক্যঃ উদাহরণের মাধ্যমে

ফর্মুলা এবং ফাংশন একই ধরণের কোর্স হতে পারে, তবে এদের ব্যবহারে একটি পার্থক্য আছে। একটি ফর্মুলা মানগুলির সাথে একটি ক্যালকুলেশন করে নতুন মান পেতে সাহায্য করে এবং একটি ফাংশন কোন প্রকার স্ক্রিপ্ট সম্পাদনা করে এবং একটি ফ্যাক্ট থেকে কোন ফলাফল উপস্থাপন করে। একটি উদাহরণ দেখলে এই পার্থক্য পরিষ্কার হতে পারে। ধরুন আমাদের কাছে দুটি উত্তর দেওয়া হয়েছে, সংখ্যায় ৪ এবং ৫ এর যোগফল আল্টিমেট নাম্বার বলে।

এখন আমরা একটি ফর্মুলা ব্যবহার করে এই দুটি সংখ্যা যোগ করতে পারি। ফর্মুলাটি হলঃ = 4 + 5। এখন যখন আমরা এই ফর্মুলাটি ক্যালকুলেশন করব, তখন আল্টিমেট নাম্বার এখানে ৯ প্রদর্শিত হবে। এখন আমরা একটি ফাংশন ব্যবহার করে এই উত্তর প্রদর্শন করতে পারি।

ফাংশনটি হলঃ = যোগ (4, 5)। এখন আমরা বলতে পারি যে ফাংশনটি সঠিকভাবে সেই উত্তর দিয়েছে এবং দুটি উত্তর মধ্যে কোন পার্থক্য নেই। এইভাবে হতে পারে যেন ফর্মুলা এবং ফাংশন একই ধরণে ব্যবহার করা হয়, তবে এই দুটি ব্যবহার একই না। ফর্মুলা মানগুলির সাথে কিছু করতে পারে এবং একটি ফাংশন স্ক্রিপ্ট থেকে কিছু গ্রহণ করে এবং ফলাফল উপস্থাপন করে।

এই পার্থক্য সম্পর্কে জানা খুব গুরুত্বপূর্ণ এবং আপনি ভালো করে জানলে আপনার প্রোগ্রামিং জ্ঞান আরও উন্নত হতে পারে।

Leave a Comment