ফাংশন (Function) কাকে বলে?

ফাংশন হল একটি কম্পিউটার প্রোগ্রামিং পদক্ষেপ, যেটি কোনো একটি অপারেশন বা কাজ পরিবর্তন করার জন্য সমন্বিত কিছু কোড স্টেটমেন্ট সংজ্ঞায়িত করে। ফাংশন ব্যবহার করে একটি প্রোগ্রামার একটি কোডটি পুনর্বিবেচনা করার দরকার থাকে না, আর একই কাজটি অনেক বার কোডে লিখতে হবে না। সাধারণতঃ ফাংশন প্রোগ্রামাররা একটি বড় ও জটিল প্রোগ্রামকে ছোট উপভোগ্য কথায় লেখা এবং ফােনকল করার জন্য ব্যবহার করে। ফাংশন সর্বনিম্ন একটি ইনপুট নেওয়া এবং আউটপুট সঙ্গে ব্যবহৃত হয় এবং প্রোগ্রামারগণ একটি ফাংশন লিখতে সময় শেষ করেন।

যদি কোনো ফাংশন না থাকে তবে প্রোগ্রাম বেশ দীর্ঘ হয় ও দোষপূর্ণ হয়ে যেতে পারে।

ফাংশন কি?

ফাংশন হল একটি প্রোগ্রামিং কনসেপ্ট যা ব্যবহারকারীকে একটি টাস্ক পূর্ণ করতে জন্য আপনাদের কাজগুলি তাকে ধারাবাহিকভাবে সংজ্ঞায়িত করে। একটি ফাংশন ধারকে কোথাও লিখা যেতে পারে যা একটি ফাংশন কল করা যাবে এবং সেগুলি পূর্ব-বর্তমান-ভবিষ্যত সমস্যার সমাধান করতে এর জন্য ব্যবহৃত হবে। বিশেষত যখন প্রোগ্রামের কোড একই লাইনে আবার আবার লিখতে হয়, তখন ফাংশনগুলিও এতটা দরকারী হয় না যে প্রোগ্রামারগণ কোড দ্বিতীয় টাইম আবার লিখেন। একটি ফাংশনের ব্যবহার করে কোড সংগ্রহ সহজ হয় এবং এটি আপনাকে শক্তিশালী প্রোগ্রামগুলি তৈরি করতে সাহায্য করে।

একটি ফাংশন পূর্ণতার জন্য প্যারামিটার ব্যবহার করা যেতে পারে এবং এরকম বিভিন্ন ফাংশনগুলি প্রোগ্রামারদের কাজকে সহজ করে।

প্রোগ্রামিং এর প্রথম কিছু

ফাংশন হল কিছুটা মেশিন কোড, যেটা আমরা লিখি একবার একটা কাজ হয়ে যায়। আমরা যখন প্রোগ্রাম লিখি, তখন অনেক সময় একই কাজ করার জন্য একই কোড বারবার ব্যবহার করতে হয়। এই সময় যদি আমরা একটি ফাংশন ব্যবহার করি, তখন আমাদের কোড শর্ট, ক্লিন এবং পড়তে সুন্দর লাগে। একটি ফাংশনকে ব্যবহার করা অনেক সুবিধাজনক হয়, কিন্তু সেটি বোঝা একটু কষ্টকর হতে পারে।

একটি ফাংশন একটি সাবরুটিন বা প্রোগ্রাম, যা আমরা একবার লিখে রাখছি, তবে সেটি কোডে রান করতে আমরা ফাংশনের নামটি লিখতে হবে। একটি ফাংশন একটি পেয়ারা এবং আউটপুট প্যারামিটার সম্পন্ন হয়ে থাকে। ফাংশনের আউটপুট অনেকসময় আমাদের ভালোভাবে ব্যবহার করার জন্য স্ক্রীনে প্রিন্ট করতে হয়। ফাংশন অনেক সাড়া ক্যালকুলেশন খুব সহজে ব্যবহার করা যায়।

এটি আমাদের একাধিক বার ব্যবহার করতে একটি সুবিধা নিয়ে আসে। সুতরাং, প্রোগ্রামিং শিক্ষার্থীদের জন্য ফাংশন অনেক গুরুত্বপূর্ণ।”

প্রোগ্রামিং ভাষা ও ফাংশন

ফাংশন হলো সফটওয়্যার প্রোগ্রামিং এর একটি মৌলিক অংশ। এটি একটি বিশেষ প্রোগ্রামিং ব্যবহার করে কাজ করে যা কেবলমাত্র নির্দিষ্ট পদক্ষেপ বা সিকুয়েন্স অংশ ব্যবহার করে কাজ করে। আপনি একটি ফাংশন তৈরি করে অনেকটা একটি নতুন পাঠকের মত আবদ্ধ করতে পারেন যা সকলের জন্য ব্যবহারযোগ্য। একটি ফাংশন একটি উদ্দেশ্য সম্পাদনের একটি নির্দিষ্ট সমষ্টি পরিষ্কার করে এবং এটি সামনে পথ দেখানোর জন্য পর্যাপ্ত সুযোগ সরবরাহ করে।

ফাংশনগুলি কেবল একটি উপাদান বা ভ্যালুর উপর কাজ করে এবং এছাড়াও কোন ক্ষতি না হলেই কাজ করে। আপনি একটি ফাংশন ব্যবহার করে কোড লেখার জন্য আরও সময় ও উদ্ধেশ্য উভয় পদক্ষেপ সংশ্লিষ্ট করতে পারেন এবং একটি সংশ্লিষ্ট কোডের সংরক্ষণও করতে পারেন। সর্বশেষে, ফাংশনগুলি প্রোগ্রামিং ভাষাগুলির দিকে একটি বিশেষ কথা এবং এর ব্যবহার অনেক উপকারী যখন আপনি প্রোগ্রামিং করছেন।

See also  গঠন অনুসারে ফাইল কত প্রকার ও কী কী?

ফাংশন কি করে?

ফাংশন একটি সফটওয়্যার কম্পোনেন্ট, যা একাধিক টাস্ক, কাজ, ফাইল, বা ডেটা প্রসেস করার জন্য ব্যবহৃত হয়। একটি ফাংশন কম্পিউটারের মেমোরিতে একটি সমষ্টি লিখে রাখে যা পরবর্তীতে যেকোনো সমস্যার সমাধানে ব্যবহৃত হয়ে উঠে। একটি ফাংশন ব্যবহার করে ব্যবহারকারী প্রোগ্রামারদের কোড লিখতে হয় না, বরং তা পুর্বানুমান করে প্রোগ্রামটি অতিক্রম করে প্রয়োজনীয় ফাংশনের সাথে যুক্ত করে লেখা হয়। এটি প্রোগ্রামারকে সময় এবং পরিশ্রম সংহত করে এবং প্রোগ্রামের একটি মডিউলার এক্সটেনশন প্রদান করে যার ফলে প্রোগ্রামটি সহজে সংরক্ষণ এবং মেনে চলা হয়।

এটি একটি প্রোগ্রামকে সেভ্যাল কনফিগারেশন প্রদান করে এবং একটি অভিজ্ঞতা ছাড়াই প্রোগ্রামকে আগাম পর্যালোচনা এবং উন্নয়নের সম্ভাবনা প্রদান করে।

ফাংশন ব্যবহারের উদাহরণ

ফাংশন হলো একটি স্বাধীন একক কোড ব্লক, যা অনেকটা একটি প্রকার সাবরুটিন হিসাবে কাজ করে। একটি ফাংশন একটি নাম ব্যবহার করে এবং কোনো প্যারামিটার গ্রহণ করে যার ওপর নির্ভরশীল কোনো কাজ করতে পারে। এটি প্রোগ্রামিং পরিভাষায় একটি জেনেরিক বিষয় যা ধরনের নির্দিষ্ট স্থান থেকে ডাটা গ্রহণ করে এবং প্রসেস করে আউটপুট প্রদান করে। একটি ভাল ফাংশন লিখার জন্য, এটি কোর ফাংশনালিটি পালন করতে হবে।

এটি অনেকটা ইউজারের কাছে মানি ক্লাসের সাথে মিল রেখেছে। ফাংশন একটি নির্দিষ্ট সেট অফ ইনপুট গ্রহণ করে এবং প্রসেস করে প্রযোজ্য আউটপুট প্রদান করে। একটি ফাংশন ব্যবহার করে কোডের কম্প্লেক্সিটি এবং দুটি বা ততোধিক অংশ মধ্যে ব্রেকপয়েন্ট উপস্থাপন একটি সহজ ও সরল উপায়। আমরা জানি ফাংশন ব্যবহার করে একটি স্ট্রিং এর দৈর্ঘ্য বের করতে পারি এবং কয়েকটি নির্দিষ্ট অক্ষর কে সার্চ করতে পারি।

একটি অন্য উদাহরণ হলো কোনো দুটি সংখ্যার যোগফল এবং বিয়োগফল বের করা, যা প্রাথমিক ক্যালকুলেটরের জন্য প্রয়োজন বলে মনে করা হয়। এখন আপনিও জানেন ফাংশন ব্যবহারের অনেক কিছু এবং এটি কীভাবে কাজ করে। এটি আপনার কোড স্বচ্ছ রাখতে ও স্কেলিং করতে সাহায্য করবে। আপনি ফাংশন দিয়ে একটি সহজ এবং সরল প্রক্রিয়া ক্রিয়াকলাপ করে নিজের কোড পারফর্মেন্স এবং অপটিমাইজ করতে পারবেন।

সমস্তকিছু কাজ করার পরে আপনি আপনার ফাংশন যখন প্রয়োজন হয় তখনই ব্যবহার করবেন।

ছোট ছোট ফাংশনের মাধ্যমে প্রোগ্রামিং ব্যবস্থাপনা

ফাংশন একটি প্রোগ্রামিং নির্দেশিকা যা কোনও একটি নির্দিষ্ট টাস্ক পূর্ণ করার জন্য ব্যবহৃত হয়। সাধারণত, একটি ফাংশন কোনও লোকের কোডের একটি ফ্ল্যাশিন নেই। ফাংশনটি পরের টাস্ক পর্যন্ত চলে থাকে এবং সেটির ফলাফল রিটার্ন করে। ছোট ছোট ফাংশনের মাধ্যমে প্রোগ্রামিং ব্যবস্থাপনা সম্ভব হচ্ছে যেখানে অনেক সাইটে আপনি স্ট্যাটিক সাইটের সাথে কাজ করতে পারবেন যেমন একটি ইমেজ ক্যাপশানকে অর্থহীন করা আছে বা যখন আপনার কোড নিরন্তরভাবে একই জিনিসটি পর্যন্ত চলে যাচ্ছে।

See also  টেবলেট পিসি কি? অর্ধপরিবাহী মেমোরি বলতে কি বুঝ?

ছোট ফাংশনের উদাহরণ হতে পারে ক্লিক ইভেন্ট বা ইউআরএল এ পেজ ভিজিট করা। এই ফাংশনগুলি অনেক সময় অন্য ফাংশনের মধ্যে সংযোজিত হয় এবং তাদের সাহায্যে আপনি প্রজেক্টে ব্যবস্থাপনার ব্যবস্থা করতে পারেন।

ফাংশন লেখার নিয়মাবলী

ফাংশন হচ্ছে প্রোগ্রামিং একটি বিশেষ ধরনের কিছু কোড যেটি একাধিক প্রোগ্রামিং টাস্ককে চলমান সক্ষম করে। একটি ফাংশন, ডাটা টাইপ উপর নির্ভর করে কিছু ইনপুট নেই বা একটি বা একাধিক আউটপুট ফাংশন এর ভিত্তিতে দেওয়া হয়। ফাংশন ক্ষেত্রে দুটি জিনিস মূলত গুরুত্বপূর্ণ হল রিটার্ন টাইপ এবং ফাংশনের নাম। রিটার্ন টাইপ সরবরাহ করে ফাংশন অংশগ্রহণকারী কাজের পরিবর্তন প্রতিস্থাপন করে এবং ফাংশনের নাম তা কখনো সন্দেহভাজন উন্নয়ন করে, সুতরাং এর নাম সহজে বোঝা যাবে ফ্যাংশনের প্রধান কাজ কী।

এছাড়াও ফাংশনে দ্বিতীয়টি গুরুত্বপূর্ণ কাজ হল ফাংশনের প্যারামিটার লিস্ট সরবরাহ করা এর মাধ্যমে ফাংশনে ইনপুট প্রদান করা হয়। সুতরাং তুলনামূলক স্বাভাবিকভাবে কার্যকরী কোডগুলি নির্দিষ্টকরণ করতে ফাংশন উপকারী এবং এর মাধ্যমে কোড পুনর্বিতরণ এবং সুসংগঠিত করা সম্ভব।

ফাংশন মেইন ব্লকে লেখা

ফাংশন লেখা হলো সফল প্রোগ্রামিং করার জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি টেকনিক। ফাংশন মানে হলো কোন কাজ সম্পাদন করতে যা একাধিক বার ব্যবহৃত হয়। একটি ফাংশন লেখার প্রথম ধাপ হলো ফাংশনের নাম চিহ্নিত করা। যদি ফাংশন সংজ্ঞার মধ্যে প্যারামিটার ব্যবহার করা হয়, তবে এগুলো ডিফিনেশনের মধ্যে উল্লেখ করতে হবে।

এরপর ফাংশনের বডি লেখতে হবে, যা ফাংশনের কাজ করবে। ফাংশন সম্পাদনের শেষ ধাপ হলো আরেকটি কোন ফাংশন ব্যবহার করছি কি না, এবং ফাংশনের ইনপুটগুলো কি হবে তার উপর ভিত্তি করে আউটপুটের রাখার জন্য টেস্টিং করতে হবে। ফাংশন লেখার মাধ্যমে প্রোগ্রামাররা একে অন্যকে পাস করা যাবে এবং একেকটি ফাংশনে পরিবর্তন না করে অনেক বার ব্যবহার করা যাবে। সুতরাং, প্রোগ্রামাররা ফাংশন লেখার নিয়মাবলী জানতে হবে যাতে তারা ভালো করে কাজ করতে পারে।

প্যারামিটার ভ্যালু ও রিটার্ন স্টেটমেন্ট

ফাংশন লেখার কোর অংশ হল প্যারামিটার ভ্যালু ও রিটার্ন স্টেটমেন্ট। প্যারামিটার ভ্যালু হল একটি ভেরিয়েবল যা একটি ফাংশনের ভিতরে পাঠানো যায়। এই ভেরিয়েবলগুলো সুমারের মধ্যে ব্যবহার করে ফাংশন কাজ করে। সেইসাথে, রিটার্ন স্টেটমেন্ট ফাংশনের ফলাফল রিটার্ন করে এমন স্টেটমেন্ট যা ব্যবহারকারী ফাংশন কল করলে পাবে।

ফাংশনের মধ্যে প্যারামিটার ভ্যালু অর্থপ্রদান করলে সেই ফাংশন প্যারামিটারের মান অনুযায়ী কাজ করবে এবং ফাংশনের ফলাফল রিটার্ন স্টেটমেন্ট অনুযায়ী হবে। একটি ফাংশন লেখার সময়, ফাংশনের নাম, প্যারামিটারের সংখ্যা এবং কাজ একটি ভালো নির্বাচন করা প্রয়োজন। সেইসাথে ফাংশনের প্রতিটি লাইন ভালো করে কমেন্ট করা উচিত যাতে পরবর্তীতে আমরা ফাংশনের বুঝতে সমস্যা না হয়। সুতরাং, ফাংশন লেখা শিখতে নিখরচ দিতে হবে যাতে বাস্তব প্রয়োজনে সেইটাকে ব্যবহার করা যায়।

Leave a Comment