ফাইল কমপ্রেস করা বলতে কী বোঝায়? ফাইল কমপ্রেস করার সুবিধা কি?

ফাইল কমপ্রেস করা মানে হচ্ছে ফাইলের আকারকে কম করে সেটা একটি যোগসূত্র, একটি টেকনিক ফাইল কমপ্রেশন যেখানে একটি বেশি সংখ্যক ফাইল একটি ফাইলে সংযুক্ত হয় তাতে আরেকটি ফাইল এর উপর ঠিক একটি কপি এভাবে সংরক্ষিত থাকে। ফাইল কমপ্রেশন এর মূল উদ্দেশ্য হল স্টোরেজ স্পেস বেশি করে তোলা। আর ফাইল কমপ্রেশন করার সুবিধাও বেশি রয়েছে, সেটি একটি বেশি আকারের ফাইলকে বেশি পরিষ্কার করে তোলে। ফাইল কমপ্রেশন দুইভাবে করা হয়, হাফম্যান কোডিং এবং লিজার্ড এলজোরিদম এবং আরও অনেকগুলি জােট।

এগুলি ওয়েবসাইট, অডিও, ভিডিও, ডকুমেন্ট, গেম এবং অ্যাপ্লিকেশন ইত্যাদি জাতির ফাইল কমপ্রেস করার জন্য ব্যবহৃত হয়।

ফাইল কমপ্রেস করা বোঝার সাধারণ অর্থ

ফাইল কমপ্রেস করা বোঝায় যে ফাইলটি আসলে দীর্ঘ হওয়া থেকে একটুখানি ছড়িয়ে গিয়েছে এমন একটি প্রক্রিয়া। এটি পুরোটা কোম্পারেশনযোগ্য এবং লেজ থাকার সাথে সাথে আরও কম স্পেসে সংরক্ষণ করতে সক্ষম হয়। প্রায় সবগুলি ফাইলের সাথে একটি ছোট সংখ্যা স্থাপন করে ফাইলটি কম্প্রেস করা হয়। আপনি হয়তো এটি আবহাওয়া রিপোর্ট এর ক্লাসিক উদাহরণ দেখতে পেরেছেন, এবং সাধারণত অনেক একই জিনিসগুলি কনভার্ট করতে ব্যবহৃত হয়।

কম্প্রেসড ফাইলগুলি আসল উৎস থেকে যাগ সংখ্যাগুলি স্থানান্তর করে নিয়ে এসেছে যাতে দরকারি কোনো ডেটা লোস না হয়। ফাইল কম্প্রেশন বর্তমানে একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রযুক্তি, যা পরিবেশ সংরক্ষণের দিকে এক বড় ধাপ।

ফাইল কমপ্রেস করা হল কী?

ফাইল কমপ্রেস করা হল ফাইল সাইজ কমানোর পদক্ষেপ। ফাইল কমপ্রেস করে কোন ফাইলটির সাইজ কমিয়ে নেওয়া হয়। যেমন, কোন একটি ফাইল যদি ১০০ মেগাবাইট হয়, তবে যদি সেই ফাইলটি কমপ্রেস করা হয়, তাহলে সেই ফাইলটির আকার কম হয়ে ৫ মেগাবাইটে নিচে যেতে পারে। এরসাথে ফাইলের সুযোগ থাকে মেমোরি ও টাইম সেভ করতে এবং ফাইল থেকে ডেটা লোড করতে যাতে কম সময় লাগে।

ইন্টারনেটেও যদি ফাইলটি এপলোড করা হয় তবে ফাইলটির সাইজ হ্যান্ডল করা হয়ে মানুষদের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যেতে পারে। ফাইল কমপ্রেস করার জন্য বিভিন্ন ধরনের টুল এক্সিস্ট যেমন- WinZip, 7-Zip এবং WinRAR। এই টুলগুলি ফাইলগুলির কাছে পাঠানো হয় এবং তাদের সাইজে কমিয়ে নেওয়া হয়। ফাইলগুলি কমপ্রেস করার পরে কোন কম্পিউটারে সেগুলি ব্যবহৃত করলে টুলটি সেগুলি নিজে মধ্যে আনকমপ্রেস করে টেনে আসে যা নিশ্চিত করে যে মেশিনটিতে সকল ফাইলগুলি সঠিকভাবে ব্যবহৃত হতে পারে।

একটি সাধারণ উদাহরণ দিয়ে বেশ সহজে বোঝা যায় যেন। কম্পিউটারে সবাই ডকুমেন্ট লেখা সম্পর্কে জানি অনেক কিছু। সন্দেহ নেই, আপনার কাছে ওয়োর্ড ফাইল খুব জ্যামছে। আপনাকে উপলব্ধ মোটামুটি অপশন হল ওয়োর্ড এর কিছু অংশ মুছে ফেলা অথবা একটি স্বতন্ত্র টুল ব্যবহার করে ফাইলটি একটি কমপ্রেস ফাইলে পরিনত করা।

প্রথমে, আপনি অংশ মুছে ফেলতে পারেন, কিন্তু অনেক সময় এই পদক্ষেপটি প্রদান করে অসম্পূর্ণ আওতা আৎকাল করতে হতে পারে যদি আপনি অ্যাক্সেসের জন্য এই ফাইলটি আবার ব্যবহার করতে চান। তাই সেক্ষেত্রে স্বতন্ত্র একটি টুলের ব্যবহার করা হলে একটি ফাইল কমপ্রেস ফাইলে পরিণত হয় এবং সাইজ কমে যায়।

See also  ফাংশন (Function) কাকে বলে?
দক্ষিণ এশিয়ার প্রায় সমস্ত দেশে যেসব মেশিন ব্যবহার করা হয়, সেগুলির কনফিগারেশন জন্য স্মার্টফোন ব্যবহার করা হয় … এটি বেশ সমস্যামুক্ত। এরকম আইটেমগুলির জন্য ফাইল কমপ্রেস করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং এটি একটি সমাধান হিসাবে কাজ করতে পারে।

ফাইল কমপ্রেস করার জন্য কেন প্রয়োজন?

ফাইল কমপ্রেস করার জন্য একটি প্রধান কারণ হলো ফাইল সাইজের সমস্যা। বিভিন্ন ধরনের সফটওয়্যার এবং ডকুমেন্টেশন ফাইলগুলি অনেক বড় হতে পারে এবং সেগুলি ভালোভাবে সরবরাহ করার জন্য আপনার সার্ভার বা ইন্টারনেট ব্যবহার করতে হতে পারে। আপনি যদি ফাইলগুলি কম্প্রেস করেন তবে তাদের সাইজ কমে যাবে এবং আপনি তা আরও দ্রুত সরবরাহ করতে পারবেন। এছাড়াও, আপনি ফাইল কম্প্রেস করে আপনার হার্ড ডিস্ক স্পেসও বাঁচাতে পারেন এবং নেটওয়ার্ক ব্যবহারের ক্ষেত্রে স্পীড করানো সম্ভব হবে কারণ ফাইলগুলি কম সাইজে থাকবে।

একটি বিশেষ উদাহরণ দিয়ে বুঝানো যায় ফাইল কম্প্রেস করার গুরুত্ব। যদি আপনি একটি ভিডিও রেকর্ড করে সেটি আপনার কম্পিউটারে সংরক্ষণ করে থাকেন, তাহলে সেটি অনেক বড় সাইজের হতে পারে। কিন্তু এই ভিডিওটির ফরম্যাট পরিবর্তন করে আপনি তার সাইজটি কম করতে পারেন এবং তাকে একটি ই-মেইল এটাচমেন্টের মতো সম্প্রতি পাঠাতে পারেন। এই উদাহরণ থেকে উপস্থাপিত হয় ফাইল কম্প্রেস গুরুত্বপূর্ণ এবং এটি একটি বিষয় যা ব্যবহারকারীর জন্য নির্দিষ্টভাবে গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে।

ফাইল কমপ্রেস করার সুবিধা

ফাইল কমপ্রেস করা আমাদের ন্যায্যভাবে ব্যবহার করলে অনেক সুবিধা হয়। প্রথমত, ফাইলগুলি আমাদের নিজেদের কম্পিউটারে আরো স্থান প্রয়োজন করবে না। এছাড়াও, ফাইলগুলি নেটওয়ার্কের মাধ্যমে পাঠানো সময় স্পীড বাড়াতে পারে এবং অন্যান্য টুলগুলির সাথে তুলনা করে অনেক কম সময় লাগবে। আবারও যদি আমরা বিভিন্ন ফাইলের সমন্বয় একটি সিঙ্গল ফাইলে সংযোজন করতে চাই তবে এটি আমাদের কাজ সহজ করে দেবে।

ফাইলগুলি একবারে আকার কম হয়ে গেলে তাদের আন্তর্জাতিক সংস্করণের ফাইল সাইজও নিয়মিত আকারের হয় যা নেটওয়ার্ক ব্যবহারে সুবিধা প্রদান করে। সার্ভারে ফাইল আপলোড টাইম ও ডাউনলোড টাইম সঙ্গেও ফাইল কমপ্রেস এর সাহায্যে কম হয়ে যায় যা আমাদের কাজ দ্রুত করে তুলে এসে। ঝামেলা জনিত হয়ে ওঠা সম্ভাবনা কমে আসে এবং ফাইলগুলি ব্যবহার করা অনেক আসান হয় ফাইল কমপ্রেস এর সাহায্যে। ফাইল কমপ্রেস করার জন্য অনেক ফ্রি সফটওয়্যার রয়েছে এবং এগুলি দিয়েই আমরা ফাইল কমপ্রেস করতে পারি।

এ ব্যাপারে আমরা সচেতন থাকার জন্য হয়রানি করব না।

স্টোরেজ স্পেস সংরক্ষণের সুবিধা

ফাইল কমপ্রেস করা একটি অসাধারণ উপায় যা স্টোরেজ স্পেস বহন করতে সহায়তা করে। এটি আপনার ফাইল সাইজ কমানোর সাধারণ পদক্ষেপ। ফাইল কমপ্রেস করার সুবিধাটি সম্পর্কে আরও বেশী জানতে গিয়ে, আমরা পরিষ্কারভাবে আবিষ্কার করতে পারি যে ফাইল কমপ্রেস করার অনেক উদাহরণ রয়েছে। আপনি যে কোনও ফাইল কমপ্রেস করতে পারেন এবং তাদের ফাইল সাইজ কমাতে পারেন, এবং তার ফলে আপনি আরও অনেক ফাইল স্টোর করতে পারবেন এবং একই সাথে আপনার সমস্ত ঵্যবহারকারীরা সংগ্রহস্থল থেকে সহজেই প্রবেশ করতে পারেন।

See also  কম্পিউটার ব্যবহারের ফলে কী কী সমস্যা হতে পারে?

এটি আপনার ফাইল সাইজ কমানোর জন্য একটি অসাধারণ পদক্ষেপ, যা আপনার আবশ্যকতা মেটানো সাধারণ হবে।

ডাউনলোডিং এবং আপলোডিং সমস্যা নিরসনে সুবিধা

একটি বড় ফাইল আপলোড অথবা ডাউনলোড করা কাজ খুবই সময় সাপেক্ষ। একবারে একটি বড় ফাইল ছড়িয়ে দেওয়া খুবই কষ্টদায়ক এবং ব্যাপারটি সমস্যার উৎস হতে পারে। কিন্তু ফাইল কমপ্রেস করার সুবিধাতে এই সমস্যা নেই। কমপ্রেস ফাইল একটি বিশাল ফাইলকে ছোট এবং আরামদায়ক করে তুলে দেয় যাতে ফাইল টি হার্ডওয়্যার ও নেটওয়ার্ক থেকে হালকা এবং দ্রুত ডাউনলোড করা ইত্যাদি কাজ সহজ হতে পারে।

একটি কমপ্রেস ফাইল আপলোড করলে ফাইলের সাইজ ভালো ভাবে কমে যায় এবং অবশ্যই ডাউনলোড এর সময় কাজ সহজ হয়ে যায়। এছাড়াও একটি সংক্ষিপ্ত কমপ্রেস ফাইল আপলোড করা যায় ইমেইলে পাঠানোর জন্য অথবা ফাইল টি পাঠানোর জন্য নেটওয়ার্ক পাঠাতে হলে সহজে পাঠানো যায়। সুতরাং ফাইল সংবাদ ও কাজ সহজ করতে ফাইইল কমপ্রেস করা আবশ্যক।

শেয়ারিং সমস্যা সমাধান

ফাইল কমপ্রেস করা হল একটি উপযুক্ত পদক্ষেপ যেটি আপনাকে আপনার ফাইলের সাইজ কমিয়ে তুলবে এবং ফাইল শেয়ারিং এর সময় আপনাকে ব্যাপারটি আরও সহজ করবে। এখন আপনি যখন কোন ফাইলকে শেয়ার করতে চান তখন বেশিরভাগ ক্ষেত্রে তা সম্ভবত অনেক বড় সাইজের হতে পারে। আপনি চাইলে ফাইল কমপ্রেস করে সেই সাইজকে কমিয়ে নিতে পারেন এবং সেই ফাইলটি শেয়ার করতে পারেন। ফাইল কমপ্রেস করার জন্য আপনার পূর্বে ডাউনলোড করা সর্বাধিক ব্যবহৃত সফটওয়্যারগুলো দিয়ে ফাইলটি কমপ্রেস করা সম্ভব।

তাদের মধ্যে 7-zip, WinRAR এবং Winzip প্রধান সফটওয়্যার। এই প্রোগ্রামগুলি আরও অনেক অপশন প্রদান করে যাতে আপনি ফাইল নিশ্চিত ভাবে কমপ্রেস করতে পারবেন এবং এটি নিজের কাছে নষ্ট হওয়ার ঝুঁকি কমিত করতে পারবেন।

ফাইল স্পিড বাড়ানোর সুবিধা

ফাইল স্পিড বাড়ানো একটি সমস্যা যা আমরা সম্মানজনকভাবে নিয়ে থাকি। অনেকে এই সমস্যাটিকে সমাধান করতে ফাইল কমপ্রেস করতে নাম। ফাইল কমপ্রেস করলে ফাইলের সাইজ কমে যায় এবং সেটির ধারাবাহিকতা বাড়ে যা ফাইলটি সহজেই শেয়ার করা যায় কিংবা মেইল করার জন্য আপনি সহজেই জিপ ফাইল ফরম্যাটে কনভার্ট করতে পারেন। আপনি জানেন না কখন দরকার হতে পারে একটি ফাইল ভাগকরণ করার।

এই ক্ষেত্রে ফাইল কমপ্রেস করলে হালকা হয়ে থাকে এবং স্পীড বাড়ে যায়। এছাড়াও ফাইল কমপ্রেস করা হলে ফাইল উপলব্ধি তাড়াতাড়ি হয়ে যায়। তাই ফাইল কমপ্রেস করার প্রয়োজনীয়তা সবার জন্য একটি কিংবা আন্তর্জাতিক জনপ্রিয় সমস্যা।

Leave a Comment