রিলেটিভ পাথ কি? ওয়েবপেজ কী? ব্যাখ্যা করো।

রিলেটিভ পাথ হলো ওয়েবপেজে একটি ফাইলের লিঙ্ক যা সর্বশেষ অবস্থানের সাথে লিংকড হয়ে থাকে। অর্থাৎ একটি ফাইলের সাথে সম্পর্কিত হলে সেই ফাইলের পথটি সর্বশেষ স্থানের সাথে যুক্ত করে দেই তাহলে সেই পথটি রিলেটিভ পাথ হিসেবে চিহ্নিত হবে। অন্যদিকে, ওয়েবপেজ হলো ইন্টারনেট ব্রাউজারে দেখা যায় এমন একটি ডকুমেন্ট যা হাইপারটেক্সট ফরম্যাটে লেখা হয়। এটি হতে পারে একটি সিঙ্গেল সিদ্ধান্ত বা একটি ব্যাপক তথ্যমূলক পেজের ফরম।

সুতরাং রিলেটিভ পাথ এবং ওয়েবপেজ দুটি ভিন্ন প্রযোজ্য টার্ম, যারা ওয়েব ডেভেলপমেন্ট বা ওয়েব ডিজাইন সম্পর্কিত কাজ করে তাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং জরুরী।

রিলেটিভ পাথ কি?

রিলেটিভ পাথ (Relative Path) হল ওয়েব ডকুমেন্ট ফাইলের পথের ক্ষেত্রে সম্পূর্ণ ডোমেইন নাম বা ওয়েবসাইট লিংকটি দরকার না। সাধারণত, রিলেটিভ পাথ সম্পূর্ণ ফাইল সম্পর্কে লিংক করে যায়, যার উপর উপযুক্ত ফাইলের নাম ও পথ দেওয়া থাকে। একটি জুমলা ফাইলের রিলেটিভ পাথ উদাহরণ হল /images/picture.jpg, যেখানে একটি ছবির ফাইল একটি সাব ফোল্ডার থেকে লোড হচ্ছে। রিলেটিভ পাথ সম্পর্কে জানা প্রয়োজন হতে পারে নিজের ওয়েব সাইট তৈরি করার জন্য বা একটি ওয়েব ফাইল যেকোন লিংকের সাথে সংযুক্ত করার ক্ষেত্রে।

রিলেটিভ পাথ এবং এবং এবং উদাহরণ দিয়ে ব্যাখ্যা

রিলেটিভ পাথ বস্তুজীবী এবং একই থাকেনা পাথ পরিভ্রমণের জন্য ব্যবহৃত হয়। এটি দুটি বা ততোধিক জটিল ক্ষেত্রেও ব্যবহার করা হয় এবং প্রতিটি পথ দূরত্ব এবং পথ ব্যাপারে বিবেচনা করে তৈরি করা হয়। যেমন, আমাদের একটি ওয়েবসাইট আছে যেখানে আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরি অনুযায়ী পোস্ট দেখতে পারি। একটি পোস্টের ঠিক ঠিক পথ ব্যাপারে আমরা না জানতে পারলেও তার সাথে সম্পর্কিত পোস্টগুলি দেখতে পারি।

এটি হল রিলেটিভ পাথ। আমরা বাম দিকে স্ল্যাশ ব্যবহার করে বলতে পারি “/category/technology/”, এখানে ক্যাটাগরি টেকনোলজি হলেও আমরা এখানে আমদের প্রয়োজন অনুযায়ী যেকোনো ক্যাটাগরি উল্লেখ করতে পারি। এটি উদাহরণ হিসাবে ব্যাখ্যা করতে সহজ।

রিলেটিভ পাথ বিভিন্ন এলিমেন্টের মধ্যে ব্যবহার

স্বাগতম সবাইকে আবার একটি নতুন টপিক দিয়ে। আজকের আলোচ্য টপিক “রিলেটিভ পাথ কি এবং কিভাবে এটি বিভিন্ন এলিমেন্টে ব্যবহার করা যায়”। রিলেটিভ পাথ হল সিএসএস সিলেক্টর যা নির্দিষ্ট এলিমেন্টের সাথে সম্পর্কিত এলিমেন্টগুলি বের করে। মানে বলতে হল, রিলেটিভ পাথ দিয়ে আমরা একটি এলিমেন্টের সাথে যুক্ত থাকা আরো এক বা একাধিক এলিমেন্টকে নির্দিষ্ট করতে পারি।

যেমনঃ ul>li:nth-child(2)। এখানে ul এলিমেন্টের দ্বিতীয় li এলিমেন্টকে নির্দিষ্ট করা হয়েছে। এখন আমরা লেখক হিসাবে রেডারদের সাথে শেয়ার করতে চাই কিভাবে রিলেটিভ পাথ ব্যবহার করতে হয়। আসুন একটি উদাহরণ দেখি।

স্ক্রিপ্টে দুটি শপিং কার্ট এবং একটি বাটন আছে। একটি শপিং কার্টে আছে একটি আইটেম এবং পরের শপিং কার্টে আগের আইটেমটি নেই। এখন প্রশ্ন হয়, পরের শপিং কার্টে আগের আইটেমটি আপনি কীভাবে নেই। এখন আমরা এই সমস্যার সমাধান খুঁজে বের করতে রিলেটিভ পাথ ব্যবহার করব।

আপনার স্ক্রিপ্ট এখন নিম্নোক্ত হবে -ঃ var firstCart = document.querySelector(‘ul.shopping-cart:nth-child(2) li:nth-child(1)’); var secondCart = firstCart.nextElementSibling; var moveButton = document.querySelector(‘button.move’); moveButton.addEventListener(‘click’, function() { secondCart.appendChild(firstCart); }); এই উদাহরণে, আমরা firstCart ভেরিয়েবল ব্যবহার করে দ্বিতীয় শপিং কার্টে আগের আইটেমটি নির্দিষ্ট করতে পেরেছি। তারপরে, একটি আগামী শপিং কার্টে তাকে নিয়ে চলছি। শেষমেষ আমরা মুভ বাটন এবং একটি ইভেন্ট লিসেনার ব্যবহার করে আগের আইটেম নিয়ে তাকে আগামী শপিং কার্টে নিয়ে চলছি। সে সমস্যাটি রিলেটিভ পাথ দিয়ে সমাধান করা হয়েছে।

See also  ইমেজ ট্যাগ, অ্যাংকর ট্যাগ ও প্যারাগ্রাফ ট্যাগের ব্যবহার লিখ।

এখন আপনার বাড়িতে যতগুলি এলিমেন্ট থাকুক না কেন, রিলেটিভ পাথ ব্যবহার করে সেগুলির সাথে সাম্প্রতিক এলিমেন্টগুলি নির্দিষ্ট করতে পারবেন। এটি উন্নয়নশীল ওয়েব ডেভেলপমেন্টে খুব জরুরি একটি কাজ এবং এটি আপনি নিশ্চয়ই পর্যাপ্তভাবে ব্যবহার করতে পারবেন। আশা করি আমার লেখা আপনাদের জন্য উপযুক্ত হয়েছে এবং আপনার জ্ঞান প্রসারিত করবে। ধন্যবাদ।

ওয়েবপেজ কী?

ওয়েবপেজ একটি ইন্টারনেট প্লাটফর্ম যেখানে আমরা বিভিন্ন ধরনের সেবা পেতে পারি। একটি ওয়েবপেজের মাধ্যমে আমরা ইন্টারনেটে উপস্থিত তথ্য, ভিডিও, ছবি বা অন্যান্য ধরনের কন্টেন্ট পেতে পারি। একটি ওয়েবপেজে সাধারণত হোমপেজ কিংবা ল্যান্ডিং পেজ থাকে যা একটি ওয়েবসাইটের হাতেকলমে থাকে। এছাড়াও আমরা ইউটিউব, ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম ও টুইটার এবং অনেকগুলি ওয়েবপেজ দেখতে পারি যে সেগুলি শুধু ওয়েবসাইট হিসেবে জানা যায় না।

সর্বশেষতম, এই ওয়েবপেজগুলি আমাদেরকে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে সেবা প্রদান করে। সুতরাং, ওয়েবপেজ আমাদের ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর জীবনে অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি প্লাটফর্ম।

ওয়েবপেজ স্ট্রাকচার এবং উদাহরণ

ওয়েবপেজ হলো ইন্টারনেটে সঞ্চালিত একটি পেজ বা দলিল। ওয়েবপেজ তৈরি হয় একটি ফাইলে, যা হতে পারে HTML, CSS, JavaScript বা অন্যান্য প্রোগ্রামিং ভাষায় লেখা যেতে পারে। একটি ওয়েবপেজ যেখানে দেখা যায় তাকে ওয়েবসাইট বলা হয়। একটি ওয়েবপেজ স্ক্রোল করলে পাবেন ম্যাটেরিয়ালগুলো এবং সেই ম্যাটেরিয়ালগুলো থেকে লিঙ্ক দেওয়া হলে ও লিঙ্ক যাওয়া মধ্যে পাবেন অন্য ওয়েবপেজে।

সাধারণত একটি ওয়েবপেজে শিরোনাম, লোগো, মেনু এবং কন্টেন্ট থাকে এবং এর উপর সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পাবেন কন্টেন্টের। একটি উদাহরণ দেখতে চাইলে, BBC ওয়েবসাইটে গিয়ে তাদের নিউজ সেকশনে গিয়ে যদি কোন একটি নিউজ খুজে নেওয়া হয় তাহলে আপনি সেটিকে একটি ওয়েবপেজ হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। ওই ওয়েবপেজে নিউজের শিরোনাম এবং ছবি, অংশগুলো হিসাবে প্রদর্শিত হবে। তাছাড়া ওই ওয়েবপেজে লিংক দেয়া থাকবে আরো নিউজ এবং যদি সেটি পছন্দ হয় তাহলে সেটিকে ক্লিক করে নিউজের সম্পূর্ণ আর্টিকেল পড়তে পারবেন।

সংক্ষেপে বলা যায় যে একটি ওয়েবপেজ ইন্টারনেটে সম্প্রচারমান ও সম্প্রাণিত একটি দলিল। এটি সাধারণত একটি ফাইল হয় যা হতে পারে HTML, CSS, JavaScript বা অন্যান্য প্রোগ্রামিং ভাষা লেখা যেতে পারে। একটি ওয়েবপেজ তথ্য প্রদান করতে পারে এবং সেটি একটি ওয়েবসাইট অংশ হিসেবে ব্যবহৃত হতে পারে। ওয়েবপেজের গুরুত্ব হলো কন্টেন্টে।

যদি একটি ওয়েবপেজ Purpose কর্তব্যপরিষ্কারভাবে পালন না করে তবে তারে সঠিকভাবে লোড হয়না অথবা সঠিকভাবে কাজ করতে পারে না।

ওয়েবপেজের মোট ব্যাখ্যা

ওয়েবপেজ হল মোবাইল ফোন বা কম্পিউটারের স্ক্রিনে দেখা যাওয়া একটি পেজ বা ডকুমেন্ট। ওয়েবপেজে থাকা তথ্য যেমন লেখা, ছবি, ভিডিও, অডিও এবং হাইপারলিংক এর মাধ্যমে দেখা যায়। ইন্টারনেট ব্যবহার শেষ করে আমরা অনেক সময় ওয়েবপেজ দেখি যেমন সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করে তথ্য খুঁজে পেতে পারি এবং সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে লগ ইন করে আমরা আমাদের বন্ধুদের ওয়েবপেজ দেখে তাদের সাথে ইন্টারএকশন করতে পারি। সরল মানে ওয়েবপেজ আমাদের ইন্টারনেট ব্যবহারের নির্দিষ্ট একটি বিভাগ যা সরাসরি আমাদের কাছে তথ্য উপাত্তি করে দেয়।

সামগ্রিক ব্যাখ্যা

আমরা জীবনের বিভিন্ন যে কোন সময়ই কম্পিউটার ব্যবহার করি। বর্তমানে ইন্টারনেটের বিস্তার ও তার ব্যবহার সুবিধাজনক হবার কারণে কম্পিউটারের ব্যবহার আরো জরুরী হয়ে উঠছে। ব্যবহারকারীর কাছে স্পষ্টতা থাকে না আর্থদণ্ড সম্পর্কে। কিন্তু একটা ধারণা বাড়ছে যে কম্পিউটার ব্যবহারে কাজ আমাদের সামনে রয়েছে সেগুলো সহজে আপনারা কম্পিউটারের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন।

See also  এইচটিএমএল ট্যাগ (HTML Tag) কি? TAG এর গঠন

একটি উদাহরণ দিয়ে বলা যাক যে ফেইসবুকের ব্যবহারকারীরা একটি ছবি আপলোড করতে পারেন এবং যদি ব্যবহারকারীরা তাদের নিজেদের বিশেষ ফিল্টার অথবা পরিবর্তনযোগ্য দক্ষতার সাথে এটি সম্বলিত করতে না পারে এটি কম্পিউটারের কর্তব্য। অতএব ব্যবহারকারী কম্পিউটার ব্যবহার করায় আপনার শক্তির কারণে খুব সহজে সম্পন্ন করা যায়।

বেসিক ওয়েবপেজ ডিজাইন এবং রিলেটিভ পাথ ব্যবহার

ওয়েবপেজ ডিজাইন হলো ইন্টারনেট বা ওয়েবসাইটে একটি পৃষ্ঠার সংরক্ষণ ও প্রদর্শন পদ্ধতি। একটি ওয়েবপেজের কাজ হলো ব্যবহারকারীদের জন্য স্বাক্ষরযুক্ত তথ্য প্রদান করা। একটি ওয়েবপেজে সাধারণত কয়েকটি তথ্য যেমন শিরোনাম, লেখকের নাম, লেখা, ছবি বা ভিডিও প্রদর্শিত হয়। রিলেটিভ পাথ ব্যবহার ওয়েবপেজের লিংক প্রতিনিধিত্ব করে এবং কিছু সম্প্রদায়ে ব্যবহার করা হয়।

একটি ওয়েবপেজের সাথে সম্পর্কিত আরেকটি পৃষ্ঠা যদি থাকে তবে তাকে রিলেটিভ পাথ ব্যবহার করে লিঙ্ক করা হয়। এটি সাধারণত একটি স্ট্রাকচারের মধ্যে থাকে যা ওয়েবপেজে এইচটিএমএল মার্কআপ দিয়ে তৈরি করা হয়। এর মাধ্যমে URL লিংকের একটি সেগমেন্টের চেয়ে বেশী পরের লিংকের সাথে সংযোগ স্থাপন করা যায়। উদাহরণস্বরূপ স্কুলের ওয়েবপেজে একটি লিংক হতে পারে – ‘https://school.com/students/grade-eight/history.html’।

এখানে প্রথম সেগমেন্ট ‘students’, দ্বিতীয় ‘grade-eight’ এবং শেষ সেগমেন্ট ‘history.html’। এই সেগমেন্টগুলি রিলেটিভ পাথের উদাহরণ। তবে সাধারণত ওয়েবপেজে পূর্বনির্ধারিত উদ্দেশ্য মেনে স্ট্যাটিক রিসোর্সের জন্য রিলেটিভ পাথটি ব্যবহার করা হয়। এমনকি গড়ে তোলা পাঠক বা ব্যবহারকারী সেটা উদ্ধারপূর্বক ব্যবহার করতে পারেন এবং ওয়েবপেজের সেই নির্দিষ্ট সেগমেন্টগুলিতে এগিয়ে যেতে পারবেন।

সুতরাং ওয়েবপেজের ডিজাইনের জন্য রিলেটিভ পাথ ব্যবহার করা সর্বাধিক জনপ্রিয় এবং এটি কোনও ক্ষতি না করে।

রিলেটিভ পাথ প্রয়োগের উদাহরণ ও উপকারিতা

রিলেটিভ পাথ একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় যা একটি প্রোগ্রামের ব্যাখ্যার সময় ব্যবহৃত হয়। এটি আসলে প্রোগ্রামের একটি উপাদান যা পরিবর্তিত শ্রেণীর সাথে সম্পর্কিত। রিলেটিভ পাথ ব্যবহার করে প্রোগ্রামাররা ভ্যারিয়েবল, ফাংশন এবং ক্লাসগুলির উপর ভিত্তি করে প্রোগ্রামিং করতে পারেন। এটি সুবিধাজনক হওয়া সাধারণ, কেননা একটি কোড সম্পাদন করা সময় নতুন উপাদান অতে অধিক যোগ করা যায় না কারণ রিলেটিভ পাথ হিসাবে উপাদানগুলি উপস্থাপিত হয়।

এটি প্রোগ্রামারের কাজকর্তব্যগুলি উন্নত করে এবং একই উপাদান বারবার লিখার সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে সাহায্য করে। রিলেটিভ পাথ ব্যবহার করে প্রোগ্রামাররা আবশ্যক উপাদানগুলি সংজ্ঞায়িত করে দিতে পারেন এবং প্রোগ্রামার কাজ করতে সমর্থ হন যদি প্রোগ্রামে যেকোন উপাদান পরিবর্তন হয়।

মিনিফিকেশন এবং ওয়েবপেজ লোডিং সময়ে রিলেটিভ পাথ ব্যবহারের অপটিমাইজেশন

ওয়েবপেজে লোডিং সময়ে রিলেটিভ পাথ ব্যবহার একটি অপ্টিমাইজেশন পদ্ধতি, যা ওয়েবপেজের বেশি সেকেন্ড ঘনিষ্ঠ হওয়া থেকে বিরত রাখে। বেস ইনফ্রাস্ট্রাকচার এবং নেটওয়ার্ক কনেকশন সম্পর্কে বিশ্বস্ত না থাকা কারণে ওয়েবপেজের লোডিং সময় কমে যায়না এবং এটি ইউজারের অভিজ্ঞতাকে ক্ষতিগ্রস্ত করে। এক্ষেত্রে রিলেটিভ পাথ ব্যবহারের সাথে আলাদা মিনিফিকেশন ব্যবহার করা হয়। সেটি পেজের অস্তিত্বকে দামিনী করে না এবং পেজের লোডিং সময় নিজেকে উন্নয়নশীল করে।

এটি ছোট ফাইলের আকার বজায় রাখে এবং পেজ লোড করার সময় আপেক্ষিক পাথ ব্যবহারের কারণে পেজে যাওয়ার সময় সুবিধা হয়। সাথে সাথে একটি পেজ পেতে নিয়মিতভাবে অর্থ হতে হয় না এবং পেজ এবং ফাইল একসাথে প্রযোজ্য থাকে। এই পদ্ধতির মাধ্যমে ওয়েব ডেভেলপার ও ইউজার উভয়েরই সুবিধা থাকে।

Leave a Comment