RDBMS কী? চলক ও ধ্রুবক এক নয় – ব্যাখ্যা করো

RDBMS কি হল একটি ডাটাবেজ সফটওয়্যার যা সদারন ডাটা অ্যাক্সেস কন্ট্রোল করে। এটি একটি বিশাল ডাটাবেজ থেকে ডাটা সংগ্রহ এবং সংরক্ষণ করতে সক্ষম। RDBMS এর পূর্বাভাস হল Relational Database Management System, যা একটি রিলেশনাল মডেল অনুসরণ করে। এটি টেবিল ভিত্তিক হয় এবং প্রতিটি টেবিলের অন্তর্ভুক্ত ডেটা একটি বৈদ্যুতিন প্রাধান্য দিয়ে কন্ট্রোল করা হয়।

উদাহরণস্বরূপ, একটি কম্পিউটার বিক্রেতার জন্য একটি টেবিল থাকতে পারে, যেখানে প্রতিটি পণ্যের নাম, মূল্য এবং স্টক সংখ্যা উল্লেখ করা হবে। RDBMS এর একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য হল এর চলক এবং ধ্রুবক এক না হওয়া। শংসাপূর্ণভাবে বলা যায়, চলক হল একটি মূলত ডেটা লক্ষণ যা টেবিলের একটি বিশেষ কলামের মাধ্যমে পরিবর্তন করে। ধ্রুবক হল একটি মূলত সংরক্ষিত ডেটা লক্ষণ যা কোনো বিশেষ কলাম ব্যবহার করে অ্যাক্সেস করা যেতে পারে।

RDBMS কি?

রিলেশনাল ডাটাবেস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (RDBMS) একটি ডাটাবেস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম যা রিলেশনাল মডেল ব্যবহার করে। এটি ডেটা নিয়ন্ত্রণ করার জন্য ব্যবহার হয় যা তথ্যভান্ডার এবং তথ্যবঙ্গীকরণ সম্পন্ন করে এবং প্রাথমিক স্তরের ডাটাবেস হিসাবে ব্যবহৃত হতে পারে। RDBMS এর ডাটাবেস রিলেশনাল মডেলের উপর নির্ভর করে যা ডেটা স্টোর করে এবং তারপর সম্প্রসারণ করে। এখানে ডাটা একটি টেবিল বা টেবিল সেটের স্বরূপে স্টোর করা হয় এবং একটি স্পষ্ট স্কিমা দ্বারা পরিচিত থাকে যা নির্দেশ করে যে টেবিলের কলাম কোন ধরনের ডেটা সহজতর প্রস্তুত থাকবে।

RDBMS এর মৌলিক বৈশিষ্ট্য হল তার স্কীমা বা সম্পর্ক বাঁধবিশ্বের পরিবর্তনের উপর নির্ভরশীল না হওয়া, যা এর একটি প্রধান উপকারিতা।

ডাটাবেজ সিস্টেম কি?

ডাটাবেজ সিস্টেম মানে হল ডেটা স্টোরেজ এবং ডেটার ইনসার্ট, আপডেট এবং সার্চ সেভ করার জন্য সফটওয়্যারের একটি প্রকার। এটি একটি সংরক্ষিত স্থান যেখানে অনেকগুলি টেবিল বা কালামগুলি থাকে যা ডেটাবেজ ম্যানেজার দ্বারা পরিচালিত হয় । আমরা সাধারণত কোন সিস্টেমের সাথে কোনো যুক্তি বা হার্ডওয়্যার যুক্ত একটি ডাটাবেজ সিস্টেমকে বিশেষভাবে ব্যবহার করি যা ডাটাবেজের পাশাপাশি অন্যান্য সুবিধা সরবরাহ করে। মানে বাস্তবে ডাটাবেজ সম্পর্কিত সিস্টেমের মাধ্যমে আমরা ডেটা সেভ করি এবং দ্রুততা সংরক্ষিত করতে পারি এবং ইতিমধ্যে যুক্ত সিস্টেমগুলির সাথে সরাসরি সংশ্লিষ্ট না হওয়ার উপকারিতা পাই।

RDBMS হল রিলেশনাল ডাটাবেস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম। এটি রিলেশনাল টেবিল দ্বারা ডেটা সংরক্ষণ এবং উদ্ধার করে। এটি প্রায় সকল বড় সফটওয়্যার এবং ওয়েব এপ্লিকেশনে ব্যবহৃত হয় । এটি সিস্টেম থেকে সরাসরি ডেটা এবং কনফিগারেশন ডাটাগুলি আনতে এবং প্রক্রিয়া করতে ব্যবহৃত হয় ।

একটি RDBMS কি করে?

RDBMS হল একটি রিলেশনাল ডাটাবেস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম। অর্থাৎ এটি ডেটা স্টোর করে এবং এগুলির সাথে একইভাবে সম্পর্ক স্থাপন করে। এটি ডেটা স্টোরেজ, ডেটা এন্ট্রি এবং ডেটাবেজটি ব্যবহার করে অন্যান্য প্রোগ্রামগুলির সাথে সমন্বয়ের ব্যাপারে উপকার করে। RDBMS এর উদাহরণ হিসাবে MySQL, Oracle, SQL Server এবং PostgreSQL উল্লেখযোগ্য।

RDBMS ডেটাবেজে ডেটা স্টোর করতে একটি ফিল্ড বা কলাম (Column) নির্দিষ্ট করে এবং প্রতিটি কলামে কেবলমাত্র একধরনের ডেটা ধারণ করে যা সংখ্যা, টেক্সট বা তারিখ হিসাবে থাকতে পারে। রিলেশনাল ব্যবস্থাটি অধিকতর জনপ্রিয় এবং উপযোগী হওয়ায় এটি ব্যবহার করে ব্যবহারকারীরা তাঁদের ডেটা ম্যানেজ করতে পারেন এবং সহজে প্রশ্ন করতে পারেন।

চলক কি?

চলক একটি পরিবাহক যা একটি আইপিসি ব্যবহার করে ইলেকট্রিক অবজেক্ট বা সিস্টেমে শক্তি প্রবাহিত করে। এই প্রক্রিয়াটি অত্যন্ত বিশ্বস্ত সম্পন্ন এবং এটি আমাদের দৈনন্দিন জীবনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে। এক্ষেত্রে চলক ডিজাইন এবং উন্নয়ন সম্পর্কে বিশেষ মনিটরিং গুরুত্বপূর্ণ। একটি সম্পূর্ণ চলক সিস্টেম এবং ব্যাডগট এর মধ্যে কয়েকটি মূল উপাদান রয়েছে যা চলকটি কাজ করতে পারে।

এই উপাদানগুলির মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণটি স্থিরতা এবং এর গুরুত্ব বোঝার জন্য ভদ্রমহালের উপর প্রতিষ্ঠিত একটি সিস্টেম। সরল ভাষায় বলা যায়, চলকগুলি যে কোনও ইলেকট্রিক উপাদান সিস্টেমে প্রবাহিত করতে ব্যবহৃত হয় এবং এই প্রক্রিয়াটি দৈনন্দিন জীবনে আমাদের সরঞ্জাম এবং সরঞ্জামদাতাদের জন্য অগ্রণিত ভূমিকা পালন করে।

চলক এর বিভিন্ন ধরণ

সাধারণত, চলক হলো একটি জিনিস বা পদার্থ যা বিভিন্ন ধরণে মানব জীবনে ব্যবহার করা হয়। চলকের বিভিন্ন ধরণ হলো রসায়ন বিজ্ঞান, বিদ্যুৎ বিজ্ঞান, পানি ও কপি বিষয়ক চলক এবং আন্তর্জালিক চলক। রসায়ন বিজ্ঞান এর চলক হলো তরল, গেলস, স্থির গ্যাস এবং তাপমাত্রা সাধারণত এখনও অজানা নতুন পদার্থ যেমন ন্যূক্লিয়ার চলক। বিদ্যুৎ বিজ্ঞান এর চলক হলো বিভিন্ন প্রকারের বৈদ্যুতিন পদার্থ যেমন বিকিরণ, পরমাণু এবং বৈদ্যুতিন স্বচ্ছল চলক।

পানি এবং কপি বিষয়ক চলক হলো জল ও তাপমাত্রা সাধারণত এর উপর ভিত্তি করে প্রকাশ করা হয়। আন্তর্জালিক চলক হলো আদর্শ গ্যাস এবং উচ্চ তাপমাত্রা এবং চাপ সাধারণত জমে থাকে শক্তি সঞ্চয় করে রাখা হয়। চলক বিজ্ঞান এর বিভিন্ন ধরণ আমাদের প্রাকৃতিক ও সাধারণ জীবনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এবং আমাদের প্রযুক্তিগত জীবনেও প্রয়োজনীয় উপায় হিসেবে কাজ করে।

চলক এর গুরুত্ব

চলক হলো কেমন পদার্থ যা কোন কিছুকে গতিশীল করে। এটি অগ্রগতির নতুন নতুন পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য ব্যবহার করা হয়। বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তির উন্নয়নে চলকের গুরুত্ব বেশ বিশাল। উদাহরণস্বরূপ, একটি বৃহত কারখানায় কোন আবহাওয়া পরিবর্তনের মাধ্যমে ঘনত্ব বাড়াতে হলে চলকগুলো ব্যবহার করা হয়।

চলক সাধারণত ঠিক করা গুরুত্বপূর্ণ সরঞ্জাম বা কাজের নিম্নে আছে এবং এই কাজ পালন করতে চলকের প্রয়োজন জুড়ে। চলক সম্পর্কিত একটি উদাহরণ হলো, আপনি একটি টিভি রিমোট চালাচ্ছেন এবং রিমোটের সাথে সম্পর্কিত বাটনগুলি চলক সহজেই নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন। চলক সম্পর্কিত সমস্যা থাকলে সেই সমস্যা সমাধান করার জন্য চলক পরিবর্তনের জন্য শেষ বলা যায়। একটি অংশগুলি ধ্বনিমাত্রা বা তাপমাত্রা যেমন সম্পন্ন হতে পারে চলকের পরিবর্তে।

See also  ডাটা সর্টিং বা সাজানো বলতে কি বুঝায়? (Data Sorting in Bengali)

ব্যবহারকারীদের অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কে জানতে হলে তারা চলক সম্পর্কিত ইনফরমেশন যেমন অবস্থান, তাপমাত্রা এবং ধ্বনিমাত্রা সম্পর্কে জানতে পারে। সেই সমস্ত উপায় আরো নতুন পথপ্রদর্শক নির্মাণ করার জন্য চলকের গুরুত্ব অনেক বেশি।

ধ্রুবক কি?

আমরা যে বহুভুজ আঞ্চলটি শিখি, সেটি উপরিবেশ হিসাবে স্থাপিত হওয়ার পর এর উপর ভ্রমণ এবং তার একটি মান নির্ণয় করার জন্য ধ্রুবক একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রপাতি। ধ্রুবক হল একটি যন্ত্রপাতি যা আকার স্থান নির্ণয় করে এবং সেই উপর অবস্থান নির্ণয় করে যেখানে ধ্রুবকটি অবস্থিত আছে। আমরা জ্যামিতিক উন্নয়নের মাধ্যমে বিভিন্ন অবস্থানে এই পদক্ষেপগুলি গ্রহণ করে এবং উপযুক্ত ধ্রুবক দ্বারা সে যান নির্দেশনা পায়। ধ্রুবক একটি একটি বিভিন্ন ফাঁকা আয়তনের লেজারের সাথে উন্নয়ন করা হয়েছে যা উচ্চ গুরুত্ব প্রদর্শিত করে।

ধ্রুবক এর বিভিন্ন ধরণ

ধ্রুবক হলো একটি পদার্থ যা শব্দের শক্তি ব্যবহার করে শব্দের তাল ও আয়তন নির্ণয় করে। এর প্রাথমিক ব্যবহার হলো দূরত্ব নির্ণয় করা যা একটি দুরবস্তুর সাথে সম্পর্কিত। যেমন, আমাদের কাছে একটি কোন দূরত্বের বেশি কথা বলা যাবে না। ধ্রুবকের ব্যবহার সম্পর্কে এটি বিভিন্ন অনুশীলন করা হয়েছে যা বিভিন্ন ধরণে থাকে।

সাধারণত এটি বাড়ি থেকে পেশা অনুষ্ঠানের অ্যাপ্লিকেশনে ব্যবহৃত হয় তবে এর ব্যবহার শিক্ষানবিশেষে পদার্থ বিজ্ঞান ও গণিতে কমপক্ষে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হিসাবে চিহ্নিত করা হয়। কোন ধ্রুবক বিশেষ করে কোন কাজে ব্যবহৃত হবে তা তৈরি করা হয়েছে যা বিভিন্ন ডিজাইন ও ব্যবহার উদাহরণ এর মাধ্যমে বর্ণনা করা হয়েছে।

ধ্রুবক এর গুরুত্ব

ধ্রুবক হলো একটি উপাদান যা পরিমাপ করার জন্য ব্যবহৃত হয়। সেটি অনেক ধরণের মেশিন, ইলেকট্রনিক উপকরণ এবং অন্যান্য উপাদানে ব্যবহৃত হয়। ধ্রুবক একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হিসাবে বিবেচনার মাধ্যমে প্রাথমিক এবং উন্নয়নশীল উদ্যোগ পরিচালনায় সাহায্য করে। এটি একটি হার্ডওয়্যার এবং সফটওয়্যার একত্রে লজিকালি বিশ্লেষণ করে এবং তথ্য সংগ্রহ করে।

এছাড়াও বিভিন্ন উপকরণে যে কোনও সমস্যা সমাধানে ফলস্বরূপ গুরুত্বপূর্ণ হিসাবে ব্যবহৃত হয়। তাই ধ্রুবক হলো মানসম্পন্ন প্রযুক্তি, যা আজকের বিশ্বে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

চলক ও ধ্রুবক একত্রে কাজ করে কেন?

চলক ও ধ্রুবক একত্রে কাজ করা অপরিহার্য, কারণ চলক এবং ধ্রুবক একত্রে কাজ করলে প্রবাহের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করা যায়। একটি চলক কোন সরঞ্জাম বা বস্তুকে চলাচল করিয়ে দেয় এবং একটি ধ্রুবক অদলবদল উপস্থিতি দেখাতে পারে। যেমন, একটি স্পিকার চলক হিসেবে কাজ করে এবং এটি ধ্রুবককে শব্দ শুনাতে পারে। আবার, সম্পূর্ণ একটি পরিবাহী প্রণালী সৃষ্টির জন্য একটি উর্ধ্বমুখী টানা এবং একটি অবস্থান অন্য দুটো অ্যারেকে সম্পর্কিত করে দেয়া হয় যাতে তার পরিবাহিত দরপত্রগুলি পন্য স্থানে পৌছাতে পারবে।

এখানে চলক এবং ধ্রুবকের যোগানদের মাধ্যমে সরঞ্জামগুলির কাজ সহজ ও টেকসই হয়।

কিভাবে চলক এবং ধ্রুবক সমন্বয় করা হয়?

চলকগুলি এবং ধ্রুবকগুলি একত্রে দুটি সমান্তর বেগমানের জন্য ব্যবহৃত হয়। যেমন, আমরা চলক এবং ধ্রুবক সমন্বয় করে দেখতে পারি চলকগুলির যাত্রা এবং ধ্রুবকগুলির পথ পাল্টেন কিভাবে। ধ্রুবকগুলির একটি ফসলানোর মাধ্যমে চলকগুলি সমন্বয় করা হয়। এই সমন্বয়ের ফলে আমরা সময়-মাপন, তরঙ্গদৈর্ঘ্য এবং উপসর্গের বেগ এর মতো বিভিন্ন উপাদানের মান নির্ণয় করতে পারি।

সমন্বয়ের এই উপায় দ্বারা আমরা ইলেকট্রিক মেশিন, উচ্চ ক্ষমতার গ্যাসের টারবিন এবং অন্যান্য ইঞ্জিনের চলন্ত দক্ষতাসমূহ পরীক্ষা করতে পারি। চলক এবং ধ্রুবকগুলি একসাথে সমন্বয় করে আমরা বিভিন্ন প্রযুক্তির উন্নয়নে একটি সমস্যার সমাধান খুঁজতে পারি।

কেন এটি গুরুত্বপূর্ণ?

চলক ও ধ্রুবক একত্রে কাজ করা অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। শুরুতেই আমাদের দৈনন্দিন জীবনে এটি অনেকটা সম্ভবত দাঁড় যাওয়ার মতো লাগে। সহজেই বোঝা যায় আমরা যে যে বিষয়গুলোতে কাজ করি তার মধ্যে বহুত সময় চলক এবং ধ্রুবক এক সাথে কাজ করে। একে অপরের বিচ্ছিন্ন করে পরিতেক্ষা করা যায় না।

তবে আসলে চলক ও ধ্রুবক একত্রে কাজ করা একদম গুরুত্বপূর্ণ কারণ যে সকল উপকার চলক দিয়ে আসা যায় তা ধ্রুবক দিয়ে নেওয়া যায় না। উদাহরণস্বরূপ বলা যায় যে আমাদের দৈনন্দিন জীবনে ঘন পরিকল্পনা ও বিনিময় এর ক্ষেত্রে চলক ও ধ্রুবকের সমন্বয়ের জন্য প্রিয় ফসল ছাড়া অন্য কোন উদাহরণ নেই। তাই চলক ও ধ্রুবক একসাথে কাজ করা দরকারি এবং গুরুত্বপূর্ণ।

কীভাবে RDBMS এর সাহায্যে ডাটাবেজ তৈরি করা হয়?

RDBMS একটি খুবই জনপ্রিয় ডাটাবেজ সিস্টেম যা ডেটা সংরক্ষণ করতে ব্যবহৃত হয়। এটি প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন তথ্য চাহিদার উপযোগে ব্যবহৃত হয় এবং সংগঠিত এবং সময় পরিচালিত সংগ্রহ করা যায়। আপনি যদি নতুন ডাটাবেস তৈরি করতে চান, তবে প্রথমে আপনাকে একটি স্ট্রাসচার ডায়াগ্রাম তৈরি করতে হবে। এটি আপনাকে ডাটাবেস ডিজাইন করতে সাহায্য করবে।

তারপরে, আপনি ডাটাবেস মডেল তৈরি করতে হবে যা নির্দিষ্ট ডেটা টাইপগুলি এবং প্রতিষ্ঠানের চাহিদার উপর ভিত্তি করে। আপনাকে ডাটাবেস লেআউট প্ল্যান করতে হবে যা আপনাকে প্রতিষ্ঠানের সাথে মিলনের উপর ভিত্তি করে নির্ধারণ করতে হবে। আপনি স্কিমা তৈরি করার জন্য বিভিন্ন ধরনের সাফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারেন যেমন MySQL, PostgreSQL, Oracle, ইত্যাদি। শেষ পর্যন্ত, সংগ্রহকৃত ডেটা ডাটাবেসে লোড করা যেতে পারে এবং ডেটা মডিফাই করা যেতে পারে।

See also  কেন ডেটা এনক্রিপশন করতে হয়?

স্পষ্টতার উন্নয়ন হলো একটি ভাল ডাটাবেস ডিজাইন এবং স্বচ্ছ কোডিং প্রক্রিয়া ব্যবহার করা। একটি পরিকল্পনার সমন্বয় করতে সময় দিন এবং উপযোগী ডাটাবেস ডিজাইন এবং আপনার প্রতিষ্ঠানের উপযোগ এর উপর ভিত্তি করে সঠিক পদক্ষেপ নিন।

ডাটাবেজ তৈরির প্রক্রিয়া

আধুনিক বিশ্বের সাথে সমস্যার টুকরো একটি হল বিশাল পরিমাণের তথ্য সংগ্রহে. একটি ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে বা সংস্থার অংশে সুষম উন্নয়নের জন্য জরুরি হয় এই তথ্যগুলি সংরক্ষণ করা. এই ক্ষেত্রে ডাটাবেজ তৈরি হয় এবং এই তথ্যগুলি সংরক্ষণ করা হয়. একটি স্থিতিশীল তথ্যসংরক্ষণ সিস্টেম হল RDBMS (Relational Database Management System). এটি দুই ধরণের তথ্যগুলি সংরক্ষণ করে: একটি টেবিল যা স্থানান্তরিত তথ্য সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য ধারণ করে এবং একটি স্পর্শক যা তথ্যের অংশীদারকে বুঝায়. এই স্পর্শক মাধ্যমে তথ্য সম্পাদনা করা যায় এবং প্রশ্ন করা যায় তথ্যের উপর ভিত্তি করে। রিলেশনাল ডাটাবেজ তৈরির প্রক্রিয়া একটি সমস্তকিছু যা সম্পন্ন করে জন্য সময় আবশ্যক। প্রথমে একটি সম্পূর্ণ ডিজাইন সম্পন্ন হলে ডাটাবেজ উন্নয়ন করা শুরু করা হয়। সাধারণত, এটি একটি ভার্চুয়াল ডাটাবেজ হিসেবে শুরু করে এবং এরপর ফিজিকাল থেকে পরিমাপ করে ডাটাবেজটি সৃষ্টি করা হয়।

এরপর টেবিলগুলি তৈরি করা হয় এবং এগুলি সম্পর্কিত তথ্য সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য ধারণ রাখে। শেষ ধাপ হল স্পর্শক তৈরি এবং উপযোগী প্রশ্নে উত্তর দেওয়া যায়।

ডাটাবেজ টেবিল সৃষ্টি করা

ডাটাবেজ সিস্টেম একটি ব্যবহারকারী দ্বারা তৈরি করা হয়, যেখানে তথ্য সংরক্ষণ করা হয়। সাধারণত একটি ডাটাবেজ সিস্টেমে অনেকগুলো টেবিল রয়েছে এবং প্রতিটি টেবিল একাধিক স্ট্রাকচার ধারণ করে। একটি সিম্পল উদাহরণ দিলে আমরা বিদ্যার্থীর টেবিল দেখতে পারি। এই টেবিলে বিদ্যার্থীদের নাম, রোল নাম্বার এবং ফোন নাম্বার সংরক্ষণ করা হয়েছে।

ডাটাবেজ সিস্টেম তৈরির জন্য ব্যবহারকারীরা প্রথমে ডাটাবেজ ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (DBMS) এর জন্য চলমান একটি রিলেশনাল ডাটাবেস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (RDBMS) বেছে নেয়। তারপর টেবিল এর স্কিমা তৈরি করা হয় যেখানে ফিল্ডের নাম, ফিল্ড টাইপ এবং অন্যান্য বিষয়গুলো নির্ধারণ করে ফেলা হয়। এরপর ব্যবহারকারি প্রতিটি ফিল্ডের মান এন্ট্রি করে সেই টেবিল সংরক্ষণ করে যা সুপরিচিত রয়েছে উদাহরণ হিসেবে। এভাবে ব্যবহারকারি রিলেশনাল ডাটাবেস সিস্টেম ব্যবহার করে নিজের ডাটা অ্যাক্সেস করতে পারে এবং প্রয়োজন মতো কাস্টম কুয়েরি সৃষ্টি করতে পারে।

ডাটাবেজ টেবিলে সার্চ, আপডেট এবং ডিলিট করা

ডাটাবেজ তৈরি একটি সম্প্রসারণশীল প্রক্রিয়া যা ডেটা পাওয়া, সেভ করা এবং এর সাথে যুক্ত কিছু মেটাডেটা সংরক্ষণ করে। RDBMS হল রিলেশনাল ডাটাবেস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম, যা ডাটাবেজ তৈরির জন্য একটি উন্নয়নশীল পদ্ধতি। এটি একটি স্পষ্ট প্রক্রিয়া অনুসরণ করে এবং তাদের জন্য একটি স্পেসিফিক স্ট্যান্ডার্ড প্রয়োজন যা নির্ধারিত করে। ডাটাবেজের নাম, টেবিল নাম, কলাম নাম এবং অন্যান্য সামগ্রী তৈরি করে এবং একটি SQL কুয়েরি দিয়ে তার ব্যবহারকারী সামগ্রী যেমন ডাটা এবং মেটাডেটা যুক্ত করতে পারেন।

এর অধিক সামগ্রী সুষম সাজানো হয় যেমন বৈশিষ্ট্য যুক্ত করা, ইনডেক্স তৈরি করা এবং প্রভাবশালী ওয়াইজার্ড দিয়ে একটি উপস্থাপন তৈরি করা। অধিকাংশ ডাটাবেজ সফটওয়্যারে সার্চ, আপডেট এবং ডিলিট করা একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ। ইচ্ছামত এই কাজগুলি করতে হলে আপনাকে SQL দিয়ে কুয়েরি ব্যবহার করতে হবে যা কিছু মনিটের মধ্যেই করা যায়।

RDBMS এর ব্যবহার

RDBMS এর ব্যবহার হলো একটি ডাটাবেস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম যা একটি রিলেশনাল ডাটাবেসের সাথে সম্পর্কিত। এটি সংগ্রহ করা ডাটা তালিকার মতো ও বিভক্ত করে এবং এটি SQL সাধারণত ব্যবহার করে বিভিন্ন সম্পর্কগুলি উপস্থাপন করে। ব্যবহারকারীরা একটি সিস্টেমে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংরক্ষণ এবং নিরাপত্তার জন্য RDBMS ব্যবহার করে। এছাড়াও, এটি একটি স্পষ্ট এবং সরল ডাটাবেস স্ট্রাকচার প্রদান করে, যা প্রবল ও হার্ডওয়্যার ফেইলার সম্ভাবনা কমিয়ে দেয়।

RDBMS উদাহরণস্বরূপ Oracle, MySQL এবং Microsoft SQL Server। এই সিস্টেমগুলি একটি সদর তালিকা বিন্যাসে তথ্য সংরক্ষণ ও উপকরণ প্রদানের জন্য চরম সুবিধা প্রদান করে।

ব্যবহারের উদাহরণ

আমরা জানি যে RDBMS (Relational Database Management System) হলো ডেটাবেজ সিস্টেমের একটি বিশাল অংশ। একটি RDBMS ব্যবহার করে ব্যবহারকারীরা ধরে নিতে পারে সম্পূর্ণ বইহিসাবে প্রবেশকারীদের তালিকা বিশ্লেষণ করে তাদের পাসওয়ার্ড ম্যানেজ করতে পারেন। একটি স্কুলে যদি বিভিন্ন ক্লাসের ছাত্রদের উপাদেয়ক নাম স্টোর করতে হয়, দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রদের তালিকা আলাদা রেখে একটি টেবিল তৈরি করা যায়। তাদের প্রবেশকারী সংখ্যাও একেকটা কলামে কিংবা ফিল্ডে স্টোর করা যায়।

একইভাবে, ডাটাবেজ ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম দ্বারা বাংলাদেশের পেশা, তাজা খবর এবং খেলাধুলার প্রতিষ্ঠানের নাম বিশ্লেষণ করা যেতে পারে। RDBMS এর সমাধান খুবই সুসম্পন্ন এবং উদ্ভাবনী যার মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন উদাহরণে এক দিকে তাকা হতে পারেন এবং একই সময়ে প্রশ্নপত্রেও তা ব্যবহার করা যায়।

কার্যক্রম চালানোর পদক্ষেপ

আমরা সবাই জানি কিভাবে একটি কম্পিউটার সিস্টেম ডেটা সংরক্ষণ করে। RDBMS হল ডেটাবেসের একটি প্রকার যেখানে তথ্য কলাম ও রো ভিত্তিক হয়। সিস্টেমটি রিলেশনাল হওয়ায় এটি টেবিলের আকার নেয়। RDBMS এর মাধ্যমে টেবিলের মধ্যে সংযোগ তৈরি করা যায়।

এটি ব্যবহারকারীদের প্রয়োজনীয় তথ্যকে উজ্জ্বল করে তাদের কাজ সহজ ও সময়কে কম করে দেয়। সাথে RDBMS শীঘ্রই প্রস্তুতি নেয় ও স্থাপন সহজতর হয়। ব্যবহারকারীদের ব্যাপারে এটি বেশ বাস্তবপূর্ণ হয়, কারণ এটি একটি ব্যবহারকারী বন্ধুত্বের মতো কাজ করে এবং কম্পিউটার সিস্টেম দ্বারা কখনো সমস্যা সৃষ্টি হয় না। সুতরাং, RDBMS ব্যবহার করে ডেটাবেস সংরক্ষণে নির্ভরশীলতা ও সুরক্ষিততা উন্নয়ন করা যায়।

Leave a Comment