WLAN কি? নেটওয়ার্কের কাজ কী? ব্যাখ্যা করো।

WLAN একটি বিকল্প নেটওয়ার্ক সংগঠন যা কিছু কম্পিউটার সমন্বয় এবং নেটওয়ার্ক স্থাপনের জন্য ব্যবহৃত হয়। সাধারণত এই নেটওয়ার্ক বাসা বা অফিসে ব্যবহৃত হয় যখন আপনি বিতরণ প্রয়োজন করেন। একটি WLAN এর পক্ষে সাধারণত একটি কেন্দ্রীয় হাব ব্যবহৃত হয় যা সমস্ত কম্পিউটার একটি সাধারণ উপাদান সম্পর্কে বিন্যাস করে। পরে কম্পিউটার সমন্বয় করে শুরু করে একটি নেটওয়ার্ক গঠন করার জন্য।

একটি ভাল কাজকর্তা হওয়ার পরিপূর্ণ প্রয়োজন হয় সঠিক ক্যাবিল, হার্ডওয়্যার এবং সংযোগ প্রদর্শন করার জন্য। একটি উদাহরণ দিতে গেলে, একটি WLAN দক্ষিণ ইন্ডিয়ান রেলওয়ের সাথে সংযুক্ত হতে পারে যাতে যাতে রয়েছে। এবারে আমরা প্রায়শই ইন্টারনেট এর ভিন্ন ভিন্ন বিষয়গুলি দেখস্থলে কমপক্ষে একটি WLAN কিভাবে একটি উপকারপ্রদ হবে তা চিন্তা করতে পারি।

WLAN এর বিস্তারিত পরিচিতি

WLAN হল Wireless Local Area Network এর সংক্ষিপ্ত নাম। এটি একটি নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি যা কম্পিউটার এবং অন্যান্য ডিভাইসগুলির মধ্যে তথ্য সংক্রান্ত সমস্যা সমাধান করে। এটি কম্পিউটার এবং অন্যান্য ব্যবহারকারীদের সংযোগ স্থাপনে সহায়তা করে। এটিতে বেশিরভাগ সমস্ত কম্পিউটার এবং অন্যান্য ডিভাইসে সংযুক্তিও দেওয়া যায়।

যেমন স্মার্টফোন, ট্যাবলেট, ল্যাপটপ ইত্যাদি। এটি বাসা, অফিস, বাস্তির মতো স্থানে ব্যবহার করা যেতে পারে এবং কম্পিউটার এবং ডিভাইসগুলির মধ্যে সমস্যা সমাধানে সহায়তা করে। এটি কম্পিউটার বা ডিভাইসে ব্যবহার করা যেতে একটি ওয়াইফাই রাউটার প্রয়োজন হয় যা ইন্টারনেট কানেকশন সরবরাহ করে। এটি অনেকটা কম্পিউটারের একটি মাঝখানা এবং ডিভাইসগুলি ইণ্টারনেট এর মাধ্যমে সংযুক্ত থাকে।

WLAN এর অর্থ কি?

WLAN এর অর্থ হল ওয়াইফাই লোকাল এলাকার নেটওয়ার্ক। এটি একটি বিতরণ তথ্য প্রযুক্তি যা কম্পিউটার, স্মার্টফোন, ট্যাবলেট এবং অন্যান্য ডিভাইসগুলি ব্যবহার করে কাজ করতে পারে। ওয়াইফাই ব্যবহার করে ডাটা ও মিডিয়া ফাইলগুলি বিভিন্ন ডিভাইসগুলির মধ্যে বিন্যাস করা যায় যাতে একই নেটওয়ার্কে সকল ডিভাইসগুলি সমস্ত মধ্যে তথ্য প্রবাহ উপলব্ধ হয়। এটি কিছু গুরুত্বপূর্ণ উদ্দেশ্যের জন্য ব্যবহৃত হয় যেমন ইন্টারনেট ব্রাউজিং, ইমেইল প্রেরণ, অনলাইন গেম খেলা, স্কাইপ কল এবং কাজের সময় সংযোগ স্থাপন।

কর্তৃপক্ষের মূল লক্ষ্য হল একটি নোটিফিকেশনে নেটওয়ার্কের মাধ্যমে কথাটি পাঠাতে যেন একটি ডিভাইস থেকে অন্য ডিভাইসে সহজে পাঠানো যায়। এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে আপনি অন্য ডিভাইসের সঙ্গে সহজে সামঞ্জস্যপূর্ণ ভাবে তথ্য আদান প্রদান করতে পারবেন।

WLAN কেন ব্যবহার করা হয়?

WLAN কেন ব্যবহার করা হয়? এটি একটি প্রশ্ন যা একটি উত্তর দরকার। একটি উচ্চ সংযোগ গতিশীল দুনিয়ার দরজা হিসেবে, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের, বাসা ও চট্টগ্রামে শিশু-ছাত্রদের জন্য সাধারণ ব্যবহারের জন্য একটি স্বচ্ছ ব্যান্ডওয়িথ সংযোগ উপলব্ধ করা হয়। এছাড়া, যে সমস্ত প্রাণীদের গাড়ি জন্য ও বাস, ট্রেইন, বাস্তবায়ন ও পার্ক সহ, গতিশীল দুনিয়া আমাদের জন্য অসংখ্য বাসর দ্বারা উপহার দেওয়া হয়। দ্বিতীয়তঃ, ন্যায্য দাম এবং ফেসট ইন্টারেস্ট যেন এই পদক্ষেপটি একটি বিকল্পের মতো।

See also  ওয়্যারলেস কমিউনিকেশন সিস্টেম: প্রয়োজনীয়তা, সুবিধা, অসুবিধা এবং ব্যবহার

তাই বাস্তব প্রাণীদের মতো, ওই সমস্ত ক্ষেত্রেই WLAN ব্যবহার করা হয়। যার ফলস্বরূপ এদের সমাজে একটি কমপ্লেক্স ও তাড়াতাড়ি পাচ্ছে, যেখানে নতুন প্রযুক্তি প্রযুক্তি আমাদের জন্য বিকল্প হিসেবে কাজ করছে।

WLAN এর উন্নতির জন্য কি কি প্রয়োজন?

WLAN হল এমন একটি প্রযুক্তি যা আমাদের সাথে সংযোগ স্থাপন করে দেয় এবং বিভিন্ন উপকরণে আমাদের সাথে সংযোগ স্থাপন করে টেকসই জীবনধারা পরিবর্তন করে দেয়। আমরা কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ট্যাবলেট এবং মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট ব্যবহার করে প্রচুর ধরনের কাজ করি। কিন্তু এই সকল উপকরণের সাথে সংযোগ স্থাপনের জন্য আমাদের প্রয়োজন হল সঠিক রকমের কনফিগারেশন এবং প্রযুক্তির সর্বশেষ বাড়তি উন্নয়ন নিশ্চিত করা। এছাড়াও, সঠিক রকমের রাউটার এবং অ্যাক্সেস পয়েন্টস এর সংস্থাপন প্রয়োজন।

এছাড়াও, টেকনোলজির সর্বশেষ উন্নয়ন এবং সবচেয়ে বিদ্যমান টেকনোলজি ব্যবহার করা প্রয়োজন। তবে এই সবই গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়ন গুলি হল বিদ্যমান উপকরণের ভিতরেই সंগ্রহিত থাকার নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। সংগৃহীত উপকরণ সঠিক ভাবে মেনে চলার নিখুঁত ব্যাপারটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

WLAN নেটওয়ার্কের কাজ

WLAN নেটওয়ার্কের কাজ বিষয়টি একটি সম্পূর্ণ বিবরণযুক্ত বিষয়। এটি একটি বেশ সহজ স্থাপন পদ্ধতি, যার মাধ্যমে ইথারনেট কার্ড ও রাউটারের সাহায্যে অধিকতর প্রান্তে নেটওয়ার্ক চলাচল সম্পন্ন করা হয়। এটি একটি সুযোগ এবং কাজের সময় উদ্বিগ্ন না হওয়ার জন্য একটি বেশ সুবিধাজনক উপায়। একটি WLAN নেটওয়ার্ক স্থাপন করার জন্য, আমাদের একটি রাউটার এবং একটি বা একাধিক ইথারনেট কার্ড প্রয়োজন।

এই সম্পূর্ণ সুসংহত পদ্ধতি একটি চমৎকার ব্যবস্থাতের জন্য নামটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটি নির্দিষ্ট যে সময়ে ও প্রয়োজনে নেটওয়ার্ক চলাচল করবে এবং মানসিকভাবে ব্যাবহারকারীদের দরকারভাব সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য ভালভাবে সমর্থিত হবে। এটি প্রায় সমস্ত প্রাণ্তে লক্ষ্য করা হয় এবং স্মার্টফোন, ট্যাবলেট, ল্যাপটপ এবং ডেস্কটপ সহ বিভিন্ন ধরনের উপকরণগুলির জন্য পোষ্ট হওয়া হয়। “

WLAN নেটওয়ার্ক কী?

WLAN নেটওয়ার্ক হল বিতর্ক সিস্টেম যার মাধ্যমে আপনি আপনার ডিভাইস এর মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবি বিনা কেবল সংযোগিত স্থান থেকে। এটি আপনাকে আপনার সাধারণ কনফিগারেশন এর মাধ্যমের সাথে সংযুক্ত করে একটি নেটওয়ার্ক প্রদান করে তাকে ব্যবহার করার জন্য খুব সহজ এবং সুবিধাজনক করে।

See also  পকেট রাউটার (Pocket router) কি? কেন ব্যবহার করে? ব্যবহার করে লাভ কি?
WLAN এর উপস্থিতি বিভিন্ন শুধু ক্ষেত্রেই পাওয়া যায় যেমন বাসা, অফিস, ক্যাম্পাস, হোটেল, রেস্টুরেন্ট ইত্যাদি এবং এটি নিয়ন্ত্রণের আগেই স্বচ্ছতার জন্য পুর্ন পরিস্কারতা শংসাপত্র সনাক্ত করে। আপনি আপনার ডিভাইস এর মাধ্যমে নেটওয়ার্ক স্ক্যান করে ওপেন নেটওয়ার্ক সনাক্ত করতে পারেন এবং পাসওয়ার্ড চেকার মাধ্যমে লগ ইন করতে পারেন।

এছাড়া আপনি একই সময়ে একাধিক ডিভাইস সংযুক্ত করে নেটওয়ার্ক ব্যবহার করতে পারেন যা খুব সুবিধাজনক এবং বাড়তি লেনদেন হ্রাস করে। একটি WLAN নেটওয়ার্ক একজন ব্যবহারকারী এবং তাকে স্থানান্তর করার কৌশল ট্রেইন করার সময় খুব প্রয়োজনীয়। সরলতা, সুবিধাজনকতা এবং বিশাল সংযোগ হল কিছু WLAN নেটওয়ার্ক এর মৌলিক সুবিধার্থ এবং ব্যবহারকারীর জন্য একটি বিশ্বাসযোগ্য পদক্ষেপ।”

WLAN নেটওয়ার্ক কিভাবে কাজ করে?

WLAN নেটওয়ার্ক হল কম্পিউটারের সাথে সংযুক্ত হওয়া সব উপকরণের মধ্যে বা বিভিন্ন কম্পিউটারের মধ্যে তথা ইন্টারনেট এবং অন্যান্য নেটওয়ার্ক সরবরাহকারীর সাথে সংযোগ বজায় রাখার জন্য ব্যবহৃত একটি নেটওয়ার্ক প্রণালী। এই প্রণালী ব্যবহার করে অনেক দূরে বসকে সেমসুদ্রের অন্য পাশে বসকে সংযোগ তৈরি করা যায়। এরকম একটি নেটওয়ার্ক তৈরির জন্য দুটি কাজ প্রয়োজন হয়। প্রথমটি হল অন্যান্য নেটওয়ার্ক সরবরাহকারী সাথে সংযোগ তৈরি করা এবং দ্বিতীয়টি হল নেটওয়ার্কের সমস্ত ডিভাইসগুলোকে মিলিয়ে নেওয়া।

একসময়ে একটি সার্ভার কম্পিউটার সব সাধারণ উপকরণের সাথে সংযুক্ত থাকে এবং একটি নেটওয়ার্ক মোহনা সম্পন্ন অর্থাৎ একে অন্যকে সাথে সংযোগ নিতে পারে সমস্ত কম্পিউটার বা উপকরণ। একটি নেটওয়ার্কের মাধ্যমে উপকরণের মধ্যে ডেটা এবং তথ্য নিয়ে যেতে পারে। নোটবুক, স্মার্টফোন এবং আরও অনেক উপকরণের মধ্যে টেথারিং কোনো কাজ নেই, যা নেটওয়ার্ক সম্পর্কিত। সকল উপকরণগুলো মেলে মিলিয়ে নেওয়ার পর হল কম্পিউটারের সাথে আপনি আপনার মোবাইল ডিভাইস রাখেন।

WLAN নেটওয়ার্ক ব্যবহারের উদাহরণ

WLAN নেটওয়ার্ক হল বিকল্প ইথারনেট কেবল ব্যবহার করা যে নেটওয়ার্ক যার মাধ্যমে কমপক্ষে দুইটি ডিভাইস একটি স্থান থেকে আরেকটিতে প্রেরণ করতে পারে। এটি সাধারণত বাসা বা অফিসের মতো ছোট আকারের নেটওয়ার্ক হিসাবে ব্যবহৃত হয়। উদাহরণ হিসাবে একটি বাসার ডিস্ট্রিক্টে সেমি-ওয়ায়াই নেটওয়ার্ক ব্যবহার করা যেতে পারে, যাতে বাসার রুমগুলির সমস্ত পর্দাগুলি ইন্টারনেটে সংযুক্ত হয়। রাউটার ব্যবহার করে আপনি বাসার প্রতিটি অংশে একটি সিঙ্গেল নেটওয়ার্ক তৈরি করতে পারেন এবং আপনার উপকরণে সংযোগ করতে পারেন যেখানে আপনি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন।

এটি হোম অফিস ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধাজনক।

Leave a Comment